ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
রাজধানীতে বাসা থেকে দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার প্রেমিকাকে ভিডিও কলে রেখে কলেজছাত্রের আত্মহত্যা বাইডেন যেতেই একসঙ্গে ৩ ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ল উত্তর কোরিয়া টেক্সাসে স্কুলে গুলি: বাইডেনের ক্ষোভ, পতাকা অর্ধনমিত রাখার ঘোষণা গুলি করে খুন করা হয়েছে অভিনেত্রী পল্লবীকে! জার্মানিতেও ছড়িয়ে পড়ছে মাঙ্কিপক্স মেক্সিকোতে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহত ১১

আশাশুনির ভাঙন এলাকা পরিদর্শনে খুলনা বিভাগীয় কমিশনার

এম,এ মামুন, সাতক্ষীরা

প্রকাশিত: ২৯ আগস্ট ২০২০  

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র


সাতক্ষীরার আশাশুনির শ্রীউলা-প্রতাপনগরের ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. মো. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার। শুক্রবার তিনি শ্রীউলার হাজরাখালী, প্রতাপনগরের কোলা, হরিশখালী ও চাকলা বেড়িবাঁধ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন- সেনাবাহিনীর টেঁকসই বাঁধ নির্মাণ করতে গেলে অনুকুল পরিবেশ প্রয়োজন। তাই দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতি কমাতে বিকল্প বাঁধ নির্মাণ করার পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এসময় ক্ষতিগ্রস্ত মানষের খাবার, সুপেয় পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হবে। অল্প কাঠে যাতে রান্না করতে পারেন সেজন্য বন্ধুচুলা সরবরাহের বিষয়টিও গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল বলেন-আবহাওয়ার বিরুপ পরিস্থিতির কারনে এবং সামনের গোণের ভয়াবহতা বিবেচনা করে বিকল্প রিংবাঁধের জন্য আমরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাথে কথা বলেছি। তারা ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে কথা বলে দ্রুত কাজ শুরু করবে। মূল বাঁধ নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত অতি গুরুত্বের সাথে আমরা আপনাদের সমস্যাগুলি দেখে যাব।

বিকল্প বাঁধের ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুধাংশু সরকার বলেন-স্থানীয় শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল ও প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেনের সাথে কথা বলে অস্থায়ী রিংবাঁধের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। খুব দ্রুত আমরা কাজ শুরু করব।

শ্রীউলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু হেনা সাকিল বলেন-পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে আলোচনা হয়েছে। আমরা রবিবার থেকে প্রায় সাড়ে ৬ কি. মি. রিংবাঁধের কাজ শুরু করব। এটা হবে হাজরাখালী এলজিইডি থেকে মাড়িয়ালা মোড় ঘুরে কোলা-ঘোলা বাসস্ট্যা- পর্যন্ত। এতে আমার ইউনিয়নের হাজরাখালী, কলিমাখালী (আংশিক), মাড়িয়ালা (আংশিক) ও প্রতাপনগর ইউনিয়নের কোলা ও হিজলিয়ার একটি অংশ বাইরে থাকবে। এই বাঁধটি সম্পন্ন হলে শ্রীউলার প্রায় ২০টি এবং আশাশুনি সদর ইউনিয়নের ১৪ গ্রামের ওঠা-নামা বন্ধ হয়ে জনভোগান্তি কমবে।
এদিন বিভাগীয় কমিশনার ক্ষতিগ্রস্ত শতাধিক মানুষের হাতে ত্রাণের প্যাকেজ তুলে দেন এবং নদী পথে প্রতাপনগরের চাকলা, হরিশখালী ও কোলাঘোলা ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন শ্যামনগর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল হক দোলন, আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা, কয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনিমেষ বিশ্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, থানা অফিসার ইনচার্জ গোলাম কবীর, আনুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটন প্রমুখ।

এই বিভাগের আরো খবর