Berger Paint

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৩ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২৯ ১৪২৭

ব্রেকিং:
সিনহা হত্যা: টেকনাফে ১৬ আগস্ট গণশুনানি বন্যা পরিস্থিতি ফের অবনতির শঙ্কা বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ৭ লাখ ৪৮ হাজারেরও বেশি রাজধানীতে করোনায় আক্রান্তের ৮০ শতাংশই উপসর্গহীন
সর্বশেষ:
র‌্যাবের প্রাথমিক অনুসন্ধান: সিনহা হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত করোনায় আক্রান্ত সাও পাওলোর গভর্নর সিটিজেন/গ্রিন কার্ড ধারীদের ঠেকাতে আদেশ জারির কথা ভাবছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভারতের প্রতিভাবান ক্রিকেটার `করণ তিওয়ারী`র আত্মহত্যা

আশ্রিত রোহিঙ্গা শিবিরে হচ্ছে কাঁটাতারের বেড়া

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

পঠিত: ১২৯
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল

টেকনাফে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের শিবির থেকে বেরিয়ে যাওয়া ঠেকাতে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে কোস্টগার্ড সদর দফতরে বাহিনীটির রজতজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে, টেকনাফে  শিবির থেকে বেরিয়ে যাওয়া ঠেকাতে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।
 
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রোহিঙ্গা শিবিরে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এরইমধ্যে সেনাবাহিনী কাঁটাতারের বেড়া তৈরির কাজ শুরু করছে। মূল উদ্দেশ্য তারা যেন শিবির থেকে বের হয়ে জনগোষ্ঠীর সঙ্গে মিশে না যায়। এছাড়া, রোহিঙ্গাদের উপর নজরদারি আরো শক্তিশালী করতে ওয়াচ-টাওয়ার ও সিসিটিভি স্থাপন করা হবে। তারা যেন বের হতে না পারে সেজন্য সব বাহিনী প্রস্তুত রয়েছে।

রোহিঙ্গাদের ওপর নজরদারি দুর্বল হয়ে পড়েছে কি-না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, মোটেও রোহিঙ্গাদের ওপর নজরদারি দুর্বল হয়নি। তাদের ওপর কড়া নজরদারি চলছে। আপনারা জানেন ১১ লাখ রোহিঙ্গা বসবাস করছে, যা টেকনাফের জনগণের ৩ গুন। তাদের নজরদারিতে পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি, আনসারসহ সব বাহিনী কাজ করছে।

রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা থেমে যায়নি, আলোচনা চলছে। আশা করছি একদিন রোহিঙ্গাদের ফেরত নেবে মিয়ানমার।

কোস্টগার্ড প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কোস্টগার্ড এখন আর ঠুঁটো জগন্নাথ নেই। এটি একটি শক্তিশালী বাহিনীতে পরিণত হয়েছে। জাহাজ-স্পীডবোট নিয়ে সমুদ্রসীমায় চোরাচালন রোধ, অবৈধ মৎস্য আহরণ প্রতিরোধসহ বিভিন্ন অপরাধ নিয়ন্ত্রণে বাহিনীটি কাজ করে যাচ্ছে। পরিবেশ সুরক্ষার জন্যও কোস্টগার্ড কাজ করে যাচ্ছে।