Berger Paint

ঢাকা, শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ১১ ১৪২৭

ব্রেকিং:
ইউক্রেনে সামরিক বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ২২ সাভারের নীলার হত্যাকারী মিজানুর গ্রেফতার সাভারে গ্যাস বিস্ফোরণে দগ্ধ ২ জনের মৃত্যু টিকা না পেলে করোনায় বিশ্বে মারা যাবে ২০ লাখ : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এমসি কলেজে স্বামীকে বেঁধে তরুণীকে গণধর্ষণ: ৬ ছাত্রলীগ নেতাকে আসামি করে মামলা
সর্বশেষ:
লিবিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ১৬ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা এবার ওসি প্রদীপের ৭ ইন্ধনদাতার বিরুদ্ধে মামলা ৩ বিভাগে আজ থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে ১১ দিনে ভারত গেল ৫০৩ মেট্রিক টন ইলিশ

ইতিহাসের আজকের এদিন

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারি ২০২০  

পঠিত: ৬৬৩


ইতিহাসের দিনপঞ্জিটি প্রতিটি মানুষের কাছে সব সময় গুরুত্বপূর্ণ।' দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র' প্রিয় পাঠকদের কথা স্মরণে রেখে নিয়মিত আয়োজনে রাখছে ‘আজকের দিন’।

ইংরজী- ১৭ জানুয়ারি ২০২০ শুক্রবার, বাংলা-  ০৩ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে উল্লেখযোগ্য কি কি ঘটনা ঘটে গেছে। বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যু, পালিত দিবস সমুহের দিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও অজানা ইতিহাস।

গ্রেগরীয় বর্ষপঞ্জীকে গ্রেগোরিয়ান বর্ষপঞ্জী, পাশ্চাত্য বর্ষপঞ্জী, ইংরেজি বর্ষপঞ্জি বর্তমানে খ্রিষ্টাব্দ বলা হচ্ছে। আন্তর্জাতিকভাবে এখন সর্বত্র স্বীকৃত বর্ষপঞ্জী। ১৫৮২ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি পোপ ত্রয়োদশ গ্রোগোরির এক আদেশানুসারে এই বর্ষপঞ্জীর প্রচলন ঘটে। সেই বছর কিছু মুষ্টিমেয় রোমান ক্যাথলিক দেশ গ্রেগোরিয় বর্ষপঞ্জী গ্রহণ করে এবং পরবর্তীকালে ক্রমশ অন্যান্য দেশসমূহেও এটি গৃহীত হয়। আর ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র গ্রহণ করে ১৭৫২ সালের সেপ্টেম্বরে। তখন তারা তাদের ক্যালেন্ডার থেকে ১১ দিন বাদ দেয়। তাই ১৭৫২ সালের ক্যালেন্ডারে ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর এই ১১ টি দিন পাওয়া যায় না।

পোপ ত্রয়োদশ গ্রেগরি কর্তৃক বর্ষপঞ্জী সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা ছিল কারণ পূর্ববর্তী জুলিয়ান বর্ষপঞ্জীর গণনা অনুসারে একটি মহাবিষুব থেকে আরেকটি মহাবিষুব পর্যন্ত সময়কাল ধরা হয়েছিল ৩৬৫.২৫ দিন, যা প্রকৃত সময়কাল থেকে প্রায় ১১ সেকেন্ড কম। এই ১১ সেকেন্ডের পার্থক্যের ফলে প্রতি ৪০০ বছর অন্তর মূল ঋতু থেকে জুলিয়ান বর্ষপঞ্জীর প্রায় তিন দিনের ব্যবধান ঘটত। পোপ ত্রয়োদশ গ্রেগরির সময়ে এই ব্যবধান ক্রমশ বেড়ে দাঁড়িয়েছিল ১০ দিনের এবং ফলস্বরূপ মহাবিষুব ২১ মার্চের পরিবর্তে ১১ মার্চ পড়েছিল। যেহেতু খ্রিস্টীয় উৎসব ইস্টারের দিন নির্ণয়ের সাথে মহাবিষুব জড়িত সেহেতু মহাবিষুবের সাথে জুলিয়ান বর্ষপঞ্জীর এই ব্যবধান রোমান ক্যাথলিক গির্জার কাছে অনভিপ্রেত ছিল।

গ্রেগোরিয়ান বর্ষপঞ্জীর সংস্কার দু'টি ভাগে বিভক্ত ছিল: পূর্ববর্তী জুলিয়ান বর্ষপঞ্জীর সংস্কার এবং ইস্টারের তারিখ নির্ণয়ের জন্য গির্জায় ব্যবহৃত চান্দ্র পঞ্জিকার সংস্কার। জনৈক চিকিৎসক অ্যালয়সিয়াস লিলিয়াস কর্তৃক দেয় প্রস্তাবের সামান্য পরিবর্তন ঘটিয়ে এই সংস্কার করা হয়। (সুত্র- উইকিপিডিয়া)

 
জন্ম
১৫০৪ - পোপ চতুর্থ পায়াস জন্মগ্রহন করেন।
১৭০৬ - মার্কিন বিজ্ঞানী বেঞ্জামিন ফ্রাংকলিন জন্মগ্রহন করেন।
১৮৬০ - রাশিয়ার বিশ্বখ্যাত গল্প লেখক অন্তোন চেখভ জন্মগ্রহণ করেন।
১৮৬৩ - রুশ অভিনেতা, নাট্যকার ও পরিচালক কনস্তানতিন স্তানিস্লাভস্কি জন্মগ্রহন করেন।
১৯১৩ - রাডার যন্ত্রের পুরোধা স্যার এ্যাডওয়ার্ড ফেনিশি জন্মগ্রহন করেন।
১৯৩৩ - প্রিন্স সদরউদ্দিন আগা খান জন্মগ্রহন করেন।
১৯৪২ - মোহাম্মদ আলী, বিশ্ববিখ্যাত মার্কিন মুষ্টিযোদ্ধা।
১৯৪৫ - জাভেদ আখতার, ভারতীয় কবি, গীতিকার এবং স্ক্রিপ্ট রাইটার।
১৯৫৩ - অঞ্জন দত্ত, ভারতীয় গায়ক , গীতিকার এবং চিত্রপরিচালক ।
১৯৬২ - জিম ক্যারি, কানাডীয় বংশোদ্ভুত মার্কিন অভিনেতা।


মৃত্যু
১৫৯৮ - রাশিয়ার জার প্রথম ফিয়োডরের মৃত্যু হয়।
১৮৯১ - মার্কিন ইতিহাসের জনক জর্জ ব্যানক্রাফ্টের মৃত্যু হয়।
১৮৯৩ - রাদারফোর্ড বি. হেইজ্‌, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৯তম রাষ্ট্রপতি।
১৯৬১ - কঙ্গোর প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী প্যাট্রিস লুমুম্বা ।
১৯৭৬ - ইতালীয় চলচ্চিত্র পরিচালক ও লেখক লুকিনো ভিসকেন্তির মৃত্যু হয়।
১৯৭৮ - শিক্ষাবিদ ও জাতীয়তাবাদী তাত্ত্বিক মুজাফফর আহমদ চৌধুরী মৃত্যুবরণ করেন।
২০১০ - জ্যোতি বসু, ভারতীয় বাঙালি কমিউনিস্ট নেতা তথা পশ্চিমবঙ্গের নবম মুখ্যমন্ত্রী।
২০১৪ - কিংবদন্তি সুচিত্রা সেন, ভারতীয় উপমহাদেশের বাঙালি অভিনেত্রী।
২০১৫ - গোবিন্দ হালদার, বাঙালি গীতিকার।


ঘটনা প্রবাহ
১২৫৮ - মঙ্গোলরা বাগদাদ নগরী অধিকার করে ও ধ্বংসযজ্ঞে লিপ্ত হয়।
১৫৮৪ - বোহেমিয়া গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার গ্রহণ করে।
১৫৯৫ - ফ্রান্সের চতুর্দশ হেনরিক প্লেন যুদ্ধ ঘোষণা করেন।
১৬০৫ - ডন কুইক্সোট প্রথম প্রকাশিত হয়।
১৮৪১ - বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বত চূড়ার নাম মাউন্ট এভারেস্ট রাখা হয়েছিলো।
১৮৬৩ - ভার্জিনিয়াতে গৃহযুদ্ধ শুরু হয়।
১৮৯৩ - হাওয়াই প্রজাতন্ত্র ঘোষিত হয়।
১৯২৩ - পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের কতৃর্পক্ষ অবৈধভাবে একজন বিপ্লবী বিক্ষককে গ্রেফতার প্রতিবাদে ছেই ইয়েন পেই পিকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ করেন।
১৯৪৫ - সোভিয়েত রাশিয়ার সৈন্য বাহিনী পোলান্ডের রাজধানী ওয়ারশকে জার্মান দখল থেকে মুক্ত করে। ইউরোপে যুদ্ধ শুরুর দিন থেকেই ওয়ারশতে যুদ্ধ আরম্ভ হয়।
১৯৪৫ - সোভিয়েত সেনারা অগ্রসর হলে জার্মান নাজি বাহিনী কুখ্যাত আউচভিচ কনসেনট্রেশন ক্যাম্প ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেয়।
১৯৪৬ - জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রথম অধিবেশন
১৯৫৩ - ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে মুনীর চৌধুরীর কবর নাটক রচনা শেষ হয়।
১৯৫৯ - সেনেগাল ও ফরাসি সুদান একীভূত হয়ে মালি ফেডারেল স্টেট গঠন করে।
১৯৬১ - কঙ্গোর জননায়ক প্যাট্রিস লুমুম্বা নিহত হন।
১৯৬৬ - স্পেনের কাছে ভূমধ্যসাগরের আকাশে মার্কিন বি-ফিফটি টু বম্বারের সাথে কেসি-ওয়ান থ্রি ফাইভ জেট ট্যাংকারের সংঘর্ষ হয়।
১৯৭০ - পাকিস্তানের জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে।
১৯৯১ - পঞ্চম হ্যারল্ড নরওয়ের রাজা হিসাবে অভিষিক্ত হন।
১৯৯১ - উপসাগরীয় যুদ্ধে অপারেশন ডেসার্ট হার্ট শুরু হয়। ইরাক এদিন ৮টি স্কাড ক্ষেপণাস্ত্র ইসরায়েলে নিক্ষেপ করে।
১৯৯৫ - জাপানের ওসাকা কোবে অঞ্চলে ভূমিকম্পে সাড়ে চার হাজারেরও বেশি লোকের প্রাণহানি ঘটে ও বিপুল ক্ষয়ক্ষতি হয়।
২০০৮ - ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ ফ্লাইট ৩৮ লন্ডন হিথ্রো বিমানবন্দরে দুর্ঘটনায় পড়ে যাতে প্রথম কোন বোয়িং ৭৭৭ পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায় কোন প্রাণহানি ছাড়াই।

আজকের এদিনে-
কিংবদন্তি সুচিত্রা সেন, ভারতীয় উপমহাদেশের বাঙালি অভিনেত্রী ১৯৩১ সালের ৬ এপ্রিল ব্রিটিশ ভারতের বাংলা প্রেসিডেন্সির পাবনা জেলায় তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তার জন্মগত নাম ছিল রমা দাশগুপ্ত। তিনি বাংলা ও হিন্দি চলচ্চিত্রে সমানতালে অভিনয় করে সুচিত্রা সেন নামে খ্যাতি অর্জন করেন। ১৯৫৫ সালে দেবদাস ছবির জন্য তিনি প্রথমবারের মতো শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার নির্বাচিত হন। ১৯৬৩ সালে সাত পাকে বাঁধা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য মস্কো চলচ্চিত্র উৎসবে সুচিত্রা সেন ‘সিলভার প্রাইজ ফর বেস্ট অ্যাকট্রেস’ জয় করেন। তিনিই প্রথম ভারতীয় অভিনেত্রী যিনি কোনো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে পুরস্কৃত হয়েছেন। এছাড়া ১৯৭২ সালে ভারত সরকার তাকে পদ্মশ্রী সম্মান দেয়।

২০১৪ সালের ১৭ জানুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার বেল ভিউ হাসপাতালে গুণী কোটি বাঙ্গালীর প্রিয় অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের শেষ নিশ্বাস ত্যাগ হয়।
‘বাংলাদেশ, আমি তোমায় ভালোবাসি। আমেরিকা আমায় তাড়িয়ে দিলে, আমি তোমাকেই বেছে নেবো’, বাংলাদেশ নিয়ে এমন ভালোবাসার কথা বলেছিলেন  বক্সিং রিঙে তিনবারের হেভিওয়েট বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ‘দ্য গ্রেটেস্ট’ মুহাম্মদ আলী।

মুহাম্মদ আলী- এ কিংবদন্তির জন্ম নাম ক্যাসিয়াস মার্সেলাস ক্লে জুনিয়র ইংরেজি। মুহাম্মদ আলী যাকে সাধারণভাবে ক্রীড়ার ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হেভিওয়েট হিসেবে গণ্য করা হয়ে থাকে। ক্রীড়াজীবনের শুরুর দিকে আলী রিঙের ভেতরে ও বাইরে একজন অনুপ্রেরণাদায়ক ও বিতর্কিত ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত ছিলেন। স্পোর্টস ইলাস্ট্রেটেড তাকে শতাব্দীর সেরা খেলোয়াড় ও বিবিসি তাকে শতাব্দীর সেরা ক্রীড়াব্যক্তিত্ব হিসেবে সম্মানিত করেছে।

২০১৬ সালের ৩ জুন শ্বাসনালীর সংক্রমণে অ্যারিজোনায় মুহাম্মদ আলী মৃত্যুবরণ করেন।