Berger Paint

ঢাকা, শনিবার   ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩,   মাঘ ২২ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
সৌদি আরবে এক বছরে ১৪৭ জনের মৃত্যুদণ্ড আ.লীগ জনগণকে দেওয়া ওয়াদা পূরণ করে : প্রধানমন্ত্রী বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজের খরচ বাড়ল দেড় লাখ মিয়ানমারে জরুরি অবস্থা আরও ছয় মাস বাড়ল আমি বাংলাদেশে বাবার কাছে থাকতে চাই: লায়লা রিনা

কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন হোক নববর্ষে

মো. আকিব হোসাইন

প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর ২০২২  

মো. আকিব হোসাইন, ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

মো. আকিব হোসাইন, ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

 

থিত রয়েছে যে, ‘সময় ও স্রোত কারো জন্য অপেক্ষা করে না।’ সময় একবার চলে গেলে আর ফিরে আসে না। অতীতকে বিদায় জানিয়ে সবাইকে নতুন কিছুর মুখোমুখি হতে হয়। ফলশ্রুতিতে শুধু অতীতের স্মৃতি, সুখ, দুঃখ-বেদনা যেন বার বার স্মরণ করিয়ে দেয়। তবুও সকল গ্লানি মুছে সুন্দর ও আলোকিত জীবন, সমাজ বা রাষ্ট্র গঠনে এগিয়ে যেতে হবে দেশের প্রতিটি শ্রেণির মানুষের।

 

পুরাতনকে বিদায় আর নতুনকে বরণ করে নেওয়া মানুষের সহজাত প্রবৃত্তির অন্তর্ভুক্ত। চলে গেছে ২০২২ খ্রিষ্টাব্দ ও এসেছে ২০২৩ খ্রিষ্টাব্দ। এই নতুন বছরের আগমনে আমাদের পথচলা শুভ হোক সেই কামনা করছি। নববর্ষে কমবেশি সবাই প্রত্যাশা থাকে জীবনের জন্য ভালো কিছু করতে। সুন্দর ও আলোকিত জীবন গঠন করতে। একটি সুন্দর ও প্রত্যাশিত ক্যারিয়ার গঠনে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। সুন্দর এই পৃথিবীতে নিজেকে একজন দক্ষ নাগরিক হিসেবে তৈরি করতে হবে।

 

তবে নববর্ষের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য পূরণে দেশের তরুণ প্রজন্মের মাঝে ব্যাপক উদ্দীপনা থাকা জরুরি। কেননা, মোট জনসংখ্যার সিংহভাগই হলো তরুণ প্রজন্ম। তাই দেশকে সমৃদ্ধির পর্যায়ে পৌঁছে দিতে তরুণ প্রজন্মকে যথেষ্ট ভূমিকা রাখতে হবে। নিজেকে একজন আধুনিক ও দক্ষ নাগরিক হিসেবে তৈরি করতে হবে। বেকারত্ব সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। বিভিন্ন দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় থাকতে হবে। উদ্যোমী, আত্মবিশ্বাসী ও দক্ষ হতে হবে। তাহলেই দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যত সৃষ্টি হবে, সৃষ্টিশীল কর্মের মাধ্যমে বিশ্বের মাঝে বাংলাদেশকে তুলে ধরতে হবে।

 

বিগত বছরে কিছু অপ্রত্যাশিত ঘটনা ঘটেছে যা থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। খুন, গুম, নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, অপহরণ কিংবা দুর্নীতির মতো অঘটন ঘটছে যা দেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে। তাই নৈতিকতার সঠিক ব্যবহার জানতে হবে। বিগত বছরে বাংলাদেশের ছিল বেশকিছু প্রাপ্তি। বহুমুখী পদ্মা সেতু নির্মাণ, চট্টগ্রামের কর্ণফুলী ট্যানেল নির্মাণ, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ, মাতারবাড়ি কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র ও জনবহুল শহরে মেট্রোরেল নির্মাণের মাধ্যমে দেশ তার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য পূরণে এগিয়েছে।

 

অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু ঘটনার সম্মুখীন হয়েছি। ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্কের অবনতির চিত্র ব্যাপকভাবে দৃশ্যমান হয়েছে। দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রদের অনাকাঙ্ক্ষিত আচরণে জাতির টনক নড়ে উঠছে। বিশেষ করে সাভারের ঘটনাটি সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। তাছাড়া শিক্ষক সমাজের কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় জাতি ব্যাপকভাবে আশাহত হয়েছে। বার বার প্রশ্নফাঁসে কিছু শিক্ষকের কর্মকাণ্ডের ফলে কলংকিত হয়েছে পুরো শিক্ষক সমাজ। যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। নববর্ষের পথচলায় এমন ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সেদিকে সুদৃষ্টি দিতে হবে। সকল বাধাঁ বিপত্তি পেরিয়ে এগিয়ে যেতে হবে নিজ উদ্যমে, উৎসাহ ও উদ্দীপনায়।

 

বিশ্বের বুকে রাশিয়া বনাম ইউক্রেনের যুদ্ধের প্রভাব ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। যার ফলে বিশ্বের কমবেশি সবদেশ প্রভাবিত হয়েছে। সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে কাঙ্ক্ষিত পরিবর্তন ঘটেছে। বাজার ব্যবস্থায় অস্থিতিশীলতা দেখা দিয়েছে। বাণিজ্য ঘাটতি দৃশ্যমান হয়েছে। বিশ্ব বাজারে ডলারের সংকট দেখা দিয়েছে। আমদানি ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েছে ও রপ্তানির পরিমাণ ক্রমশ হ্রাস পেয়েছে। শেয়ার বাজারে দরপতন ঘটছে। বাজারে সিন্ডিকেটের ফলে দ্রব্যের বাজারে সংকট তৈরি হয়েছে। জিনিসপত্রের দাম অত্যধিক বৃদ্ধি পেয়েছে। মানুষের ক্রয়ক্ষমতা কমেছে অথচ আয় বাড়ে নি। মূল্যস্ফীতির হার বৃদ্ধির ফলে মানুষ বহুমাত্রিক সংকটে পতিত হয়েছে। জীবনযাপন করা এখন দুঃসাধ্য ব্যাপার হিসেবে কাজ করছে। আগামীতে বৈশ্বিক মহানন্দার সম্ভাবণা বেশি। ফলে জনজীবনে চরম দুর্গতি আসার সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে।

 

এভাবে নানান সংকটের মধ্যদিয়ে সময় অতিবাহিত হয়েছে। এসব সংকট থেকে উত্তরণের পথ বের করতে হবে। দেশ ও জাতির কল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে। সকল ত্রুটির অবসান ঘটিয়ে সুন্দর ও আলোকিত জীবন, সমাজ ও পৃথিবী সৃষ্টির প্রত্যয়ে এগিয়ে আসতে হবে। এজন্য কঠোর পরিশ্রম ও সাধনা করতে হবে। ন্যায় কাজের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার পাশাপাশি মন্দ কাজ থেকে দূরে থাকতে হবে। তাহলেই আলোকিত হবে বসুন্ধরা, আলোকিত হবে আমাদের জীবন। সেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য পূরণে নববর্ষের পথচলা শুভ হোক। এমন প্রত্যাশাই করছি।


তরুণ লেখক ও সংস্কৃতিকর্মী
সভাপতি, বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম, ঢাকা কলেজ শাখা।

 

এই বিভাগের আরো খবর