ঢাকা, শনিবার   ২৫ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১১ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
পদ্মায় স্বপ্নপূরণের ক্ষণগণনা
১৮দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
০৬মিনিট
:
১০সেকেন্ড
সর্বশেষ:
সবাইকে কৃতজ্ঞতা জানালেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর মধ্য দিয়ে দেশ নতুন যুগে প্রবেশ করেছে: শিক্ষামন্ত্রী মাথা নোয়াইনি, কখনো নোয়াবো না: প্রধানমন্ত্রী জনসভাস্থলে লাখো মানুষের ঢল দেশে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৩ পদ্মা সেতুতে টোল দিলেন প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করা হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই, বললেন প্রধানমন্ত্রী

ক্যানসার জয় করে পর্দায় ফিরছেন মহিমা?

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০২২  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

বিগত কয়েক বছর ধরে বলিউড থেকে দূরে রয়েছেন ‘পরদেশ’ খ্যাত বলিউড অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী। তবে সেটির কারণ এতদিন জানা ছিলনা কারোই। এবার জানা গেল মরণব্যাধী ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করছেন এই অভিনেত্রী।

 

সম্প্রতি বলিউড অভিনেতা অনুপম খের একটি ভিডিও শেয়ার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় মহিমার স্তন ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন।
 

মহিমা চৌধুরীর একটি ভিডিও শেয়ার করে অনুপম খের লিখেছেন, মাস খানেক আগে মহিমাকে একটি সিনেমায় যুক্ত করতে ফোন করেছিলেন তিনি। সেসময় অনুপম তার ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার খবর জানতে পারেন। ক্যানসারের বিরুদ্ধে তার লড়াই চালিয়ে যাওয়ার গল্প শোনেন। এ সময় অনুপমের কাছ থেকে কাজের প্রস্তাব পেয়ে পরচুলা পরে অভিনয় করা যাবে কিনা জানতে চান মহিমা। কাজে ফেরার এমন স্পৃহা এবং বাঁচার অদম্য ইচ্ছা দেখে অনুপমের মনে হয়, তার গল্প ক্যানসার আক্রান্ত অজস্র নারীকে সাহস যোগাবে। তিনি বলেন, ‘মহিমা চেয়েছিল তার রোগের কথা আমিই প্রকাশ করি।’
 

অনুপম খের আরও লেখেন, ‘মহিমা, তুমি আমার হিরো। বন্ধুরা, তার জন্য দোয়া, ভালোবাসা পাঠান। সে আবারও শুটিংয়ে ফিরবে, যেখানে তাকে মানায়। সে ওড়ার জন্য প্রস্তুত। প্রযোজক, পরিচালক যারা আছেন, তাদের বলতে চাই, মহিমার প্রতিভা কাজে লাগানোর এই সুযোগ।’

 

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মহিমা জানান, “আমার কোনো লক্ষণ ছিল না। প্রতিবছরই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাই। একবার সন্দেহবশত স্তনের টিস্যুর কিছুটা অংশ বায়োপসি করতে দেন চিকিৎসক। ফল নেগেটিভ আসে। এরপর অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন।

 

তিনি আরও জানান, চার মাসের চিকিৎসা নানান ঘাত প্রতিঘাতের সম্মুখীন হতে হয়েছে তাকে। এই চিকিৎসা মোটেই সহজ ছিল না। তবে আমি এসব বলে কাউকে বিচলিত করতে চাই না। কারণ এটি নিরাময়যোগ্য, তাই আমি চাই না যে কেউ এই চিকিৎসা প্রক্রিয়াকে ভয় পান।

 

২০১৬ সালে মহিমা চৌধুরীকে সবশেষ দেখা গেছে ‘ডার্ক চকলেট’ নামে একটি সিনেমায়। এরপর আর নতুন কোনো সিনেমায় যুক্ত হননি তিনি। তবে আশা করা যাচ্ছে ক্যানসারকে হারিয়ে এবার অনুপম খেরের ‘দ্য সিগনেচার’ এর মধ্য দিয়ে আবারও পর্দায় ফিরবেন তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর