ঢাকা, শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৮

ব্রেকিং:
দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন কারণে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় `জাওয়াদ` শুরু হচ্ছে বঙ্গভ্যাক্সের প্রথম ট্রায়াল বাংলাদেশকে বিনামূল্যে করোনার আরও টিকা দেবে যুক্তরাষ্ট্র রোনালদোর রেকর্ডের ম্যাচে জয় পেল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

ঘাটাইলে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

সবুজ সরকার সৌরভ, ঘাটাইল(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০২১  

ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

 

শিক্ষককে লাঞ্ছিত ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রতিবাদে বিদ্যালয়ের প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থীর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

 

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে ঘাটাইল উপজেলার শালিয়াবহ চৌরাস্তা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধন পালন করেন। মানববন্ধনটি বিদ্যালয় মাঠ থেকে শুরু করে বাজারের বিশেষ বিশেষ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

 

শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল বুধবার (২৪ নভেম্বর) বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভা চলাকালীন সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ লাঞ্ছিত ও মারধরের স্বীকার হন। অফিসকক্ষে প্রবেশ করে কাগজপত্র ছিঁড়ে ফেলে । পরে উপস্থিত উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, স্থানীয় চেয়ারম্যান তাকে উদ্ধার করেন।

 

সহকারী শিক্ষক মো. নুরুল আমীন জানান, একদল সন্ত্রাসী অফিসকক্ষে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও চেয়ারম্যানের সামনে প্রধান শিক্ষক আবু হানিফকে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ ও লাঞ্ছিত করেন । বিদ্যালয়ের মূল্যবান কাগজপত্র ছিঁড়ে ফেলে। এ ঘটনায় দোষীদের বিচারের আওতায় এনে শাস্তি দাবি করেন তিনি।

 

প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ জানান, ম্যানেজিং কমিটির সভা চলাকালীন সময় মুহাম্মদ আলী জিন্না ওরফে (চুন্নু) সহ তার সন্ত্রাসীদল আমার উপর হামলা করে। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মজিদ হাজী নামের এক ব্যক্তিকে জোর করে সভাপতি নির্বাচিত করতে চাইলে তা নিয়মবহির্ভূত হওয়ায় বাঁধা দিলে তারা আমাকে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ ও গায়ে হাত তুলেন । জামা-কাপড় ছিঁড়ে ফেলে। প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন তিনি।

 

এ বিষয়ে অভিযুক্ত মুহাম্মদ আলী জিন্না অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ওইদিন এরকম কোন ঘটনা ঘটেনি, মারামারির কোন প্রশ্নই ওঠেনা। সম্পুর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।


এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. শফিকুল ইসলাম বলেল, উত্তেজিত পরিবেশে আমরা প্রধান শিক্ষককে সেফ করেছি। এ বিষয়ে কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের আরো খবর