Berger Paint

ঢাকা, শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ১১ ১৪২৭

ব্রেকিং:
ইউক্রেনে সামরিক বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ২২ সাভারের নীলার হত্যাকারী মিজানুর গ্রেফতার সাভারে গ্যাস বিস্ফোরণে দগ্ধ ২ জনের মৃত্যু টিকা না পেলে করোনায় বিশ্বে মারা যাবে ২০ লাখ : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এমসি কলেজে স্বামীকে বেঁধে তরুণীকে গণধর্ষণ: ৬ ছাত্রলীগ নেতাকে আসামি করে মামলা
সর্বশেষ:
লিবিয়া উপকূলে নৌকা ডুবে ১৬ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা এবার ওসি প্রদীপের ৭ ইন্ধনদাতার বিরুদ্ধে মামলা ৩ বিভাগে আজ থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে ১১ দিনে ভারত গেল ৫০৩ মেট্রিক টন ইলিশ

কুলাউড়ায় ‘নিরাপদ স্বাস্থ্য রক্ষায় সামাজিক সংগঠন’র কার্যক্রম

মাজহার লালন

প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০  

পঠিত: ১৬৫
ছবি- প্রতিদিনের চিত্র

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র

 

২৫শে সেপ্টেম্বর ২০ইং,শুক্রবার প্রতি সপ্তাহের মতো এ সপ্তাহে ও "নিরাপদ স্বাস্থ্য রক্ষায় সামাজিক সংগঠন" এর বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচী সম্পন্ন। তবে এবারের কর্মসূচিটি একে বারে ভিন্ন।

"নিরাপদ স্বাস্থ্য রক্ষায় সামাজিক সংগঠন " প্রতি সপ্তাহে কুলাউড়ার আনাচে-কানাচে বিনামুল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে থাকে। পূর্বের ন্যায় ২৫শে সেপ্টেম্বর কুলাউড়া উপজেলাধীন "রাঙ্গিছড়া আমুলী খাসিয়া পুঞ্জি" তে প্রায় ৩ ঘন্টার পাহাড়ি আঁকাবাকা পিচ্ছিল কাদাযুক্ত কাঁচা রাস্তায় হেঁটে হেঁটে জায়গায় পৌছে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় এবং অসহায় রোগীদের সেবা প্রদান করে।

উক্ত ক্যাম্পেইনে প্রায় ১৫০ জনের মতো জনসাধারণের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়। এর মধ্যে প্রায় ৮০ জন রক্তদানে ইচ্ছুক।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাইদুর রহমান চৌধুরী বলেন - পাহাড়ি এলাকায়(খাসিয়া পুঞ্জি) যে সকল মানুষ বসবাস তারা চিকিৎসা সেবা থেকে প্রায় বঞ্চিত। গুরুতর অসুস্থ কোন রোগী বা সাধারন কোন রোগীকে নিয়ে তারা চিকিৎসা গ্রহন করতে আসতে পারেনা ঠিক মতো। তাই উনার মাথায় এই কথাটি আসে যে পাহাড়ি এলাকায় উনার সংগঠনের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচী ও অসহায় রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান করবেন।
এছাড়াও তিনি আরো বলেন পুঞ্জিতে যদি উনারা রোগী সমবেত করতে পারেন তাহলে প্রতি শুক্রবার উনি নিজে এবং উনার সংগঠন নিয়ে বিনামূল্যে সেবা প্রদান করবেন।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সিনিয়র সদস্য কলম সৈনিক রেজাউল আম্বিয়া রাজু সভাপতির বক্তব্যের সাথে সহমত পোষণ করেন। উনি বলেন সংগঠন প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে উনাদেরকে অনেক লাঞ্চনা বঞ্চনার শিকার হতে হয়েছে, এরপরেও উনারা থেমে থাকেন নি, মুল লক্ষ্যের দিক থেকে নজর ফেরাননি।  আজ সেই কষ্টের ফল পাচ্ছেন।

তিনি সংগঠনের উপস্থিত বাকি সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন- আমরা সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে যে কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে সেটার ফল সংগঠনের নতুন নেতৃবৃন্দ যেনো যথাযথভাবে প্রয়োগ করে থাকেন।

পাহাড়ি আঁকাবাকা উচু নিচু পিচ্ছিল কাদা যুক্ত রাস্তায় হেঁটে হেঁটে প্রান্তিক মানুষের দ্বারপ্রান্তে স্বাস্থ্য সেবা পৌছে দেওয়া এমন কার্যক্রমে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন স্থানীয় জনসাধারণ।

সংগঠনের সকল সদস্যরা একাত্মতা প্রকাশ করে বলেন "অন্যের প্রয়োজনে পাশে থাকুন,নিজের প্রয়োজনে পাশে পাবেন।" এই স্লোগানটি বুকে ধারণ করে এগিয়ে যাবার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন সংগঠনের সকলে।

এই বিভাগের আরো খবর