ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
ডাক্তারদের ফাঁকিবাজি রুখতে হাজিরা খাতায় দিনে তিনবার সই করার নির্দেশ! ১০০০ জনবল নিয়োগ দেবে ওয়ালটন ঢাকায় আসছে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি সরকারকে ৬ দিনের আল্টিমেটাম ইমরান খানের ফাইনালের পথে বেঙ্গালুরু, লখনৌর বিদায় সেনেগালে হাসপাতালে আগুন; ১১ নবজাতকের মৃত্যু বিশ্বব্যাপী মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত ২০০ ছাড়িয়েছে ঢাবিতে ফের ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষ

নতুন প্রধানমন্ত্রী এই সপ্তাহেই: শ্রীলঙ্কান প্রেসিডেন্ট

সংবাদ বিশ্ব ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২ মে ২০২২  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবায়া রাজাপাকসে বলেছেন, তিনিই নতুন প্রধানমন্ত্রীকে নিয়োগ করবেন। এর পাশাপাশি সংবিধানের ১৯তম সংশোধন চালু করা হবে। পার্লামেন্টকে আরো ক্ষমতা দেওয়া হবে।

 

প্রেসিডেন্টের ঘোষণা, তিনি সব রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং বলবেন। দেশে রাজনৈতিক স্থিরতা যাতে থাকে, সেটা তিনি নিশ্চিত করবেন। জাতীয় সুরক্ষার বিষয়টিও তিনি নিশ্চিত করবেন। একই সঙ্গে তিনি বিক্ষোভকারীদের উপর আক্রমণের নিন্দা করেছেন।

 

গোটাবায়া রাজাপাকসে বলেছেন, দেশ সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এই সংকট থেকে বেরিয়ে আসতে আমি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কাছে একটা প্রস্তাব পাঠিয়েছি। অতীতে অনেক নেতার সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আমি তাদের কিছু সুপারিশ মেনে কড়া সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং সমস্যা সমাধানের প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছি।

 

গোটাবায়া এটাও স্পষ্ট করে দিয়েছেন, নতুন সরকারে রাজাপাকসে পরিবারের কেউ থাকবেন না। মাহিন্দ্রা রাজাপাকসে ইতোমধ্যেই পদত্যাগ করেছেন। তার মন্ত্রিসভারও আর অস্তিত্ব নেই। ফলে নতুন প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রিসভা নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো অসুবিধা নেই।

 

প্রেসিডেন্ট গত সোম ও মঙ্গলবারের সহিংসতার প্রসঙ্গ তুলে বলেছেন, সরকার সব নাগরিকের সুরক্ষা নিশ্চিত করবে। তাই সামরিক বাহিনী ও পুলিশকে বলা হয়েছে, কড়া হাতে দাঙ্গাকারীদের মোকাবিলা করতে।

 

তিনি জানিয়েছেন, আমি এমন একজনকে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নিয়োগ করব, যিনি পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন পাবেন। তিনি মানুষের মনেও আস্থা ফিরিয়ে আনতে পারবেন। তারপর সংবিধানের ১৯ তম সংশোধন রূপায়ণের কাজ হবে।

 

গোটাবায়া বলেছেন, শ্রীলঙ্কায় প্রেসিডেন্ট-প্রধান ব্যবস্থা পরিবর্তনের দাবি উঠেছে। নতুন সরকার গঠিত হোক। তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসুক। তারপর এই বিষয়ে আলোচনা করা যেতে পারে।

 

এই বিভাগের আরো খবর