ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬

ব্রেকিং:
৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ শাহাদাত কাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ট্রাক-কাভার্ডভ্যান শ্রমিকদের কর্মবিরতি
সর্বশেষ:
দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী শেষ টেস্ট খেলতে কলকাতার পথে টাইগাররা, মূল চ্যালেঞ্জ বোলারদের মনে করেন পেসার আল-আমিন হোসেন পেঁয়াজের পর চালের দাম বাড়ানোর ষড়যন্ত্র চলছে : নাসিম পদ্মা সেতুতে বসেছে ১৬তম স্প্যান

পপি ত্রিপুরা হত্যাকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০১৯  

পঠিত: ৯১৮

বান্দরবান সরকারী কলেজের ডিগ্রী দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী পপি ত্রিপুরাকে প্রাইভেটকার চাপিয়ে হত্যার দায়ে গ্রেফতারকৃত আসামীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে পপি ত্রিপুরার পরিবার ও বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদ, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম, বাংলাদেশ ত্রিপুরা খ্রীস্টিয়ান স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন।

আজ ২৬ শে অক্টোবর শনিবার বিকাল ৩ ঘটিকার সময় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে সুস্থ বিচারের দাবী জানান নিহতের ভাই জয়ন্ত নিকোলাস ত্রিপুরা। তদন্তকারী কর্মকর্তা টাকার বিনিময়ে আসামীপক্ষের সাথে মীমাংসায় যাওয়ার প্রস্তাব দেন বলেও জানান এবং জোরপূর্বক মামলা তুলে নেয়া, জোরপূর্বক মীমাংসায় নিয়ে আসার জন্য বান্দরবান এর সরকারী কর্মকর্তার মাধ্যমে তার ভগ্নিপতি মিলন ত্রিপুরার মোবাইলে এবং মামলা শুরু হওয়ার পর থেকে যারা বাদীপক্ষের সাথে তাদেরকে নানানভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে আসামী পক্ষ। মামলা চলাকালীন সময় লিয়ানা ত্রিপুরা পপির সুষ্ঠু বিচার ও তদন্ত পাওয়ার ব্যাপারেও সন্দিহান রয়েছে।

২০১৮ সালের ঢাকায় ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দ্রুতগতির দুই বাসের রেষারেষিতে রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী রাজীব, দিয়া নিহত ও ১০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। এই সড়ক দূর্ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে নিহত দুই কলেজ শিক্ষার্থীর সহপাঠিদের মাধ্যমে শুরু হওয়া নিরাপদ সড়ক দাবীর বিক্ষোভ পরবর্তীতে সাড়াদেশে ছড়িয়ে পড়ে।   

এ মানববন্ধন থেকে অতীতের সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন কিন্তু ন্যায় বিচার পায়নি তাদের ন্যায় বিচারসহ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রাইভেটকার চাপিয়ে লিয়ানা ত্রিপুরা পপির হত্যাকারীর সর্বোচ্চ ও যথাযথ শাস্তির দাবীতে নাগরিক সমাজ, ছাত্র সমাজ ১১টি দাবী উত্থাপন করেন।

উল্লেখ্য গত ১৮ অক্টোবর সকালে বাসা থেকে বান্ধবীসহ রিক্সাযোগে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে গুলশান ২ এলাকায় পেছন থেকে বেপরোয়াভাবে একটি প্রাইভেটকার তাদের রিক্সাকে ধাক্কা দেয়, এসময় পপি ত্রিপুরা রাস্তায় পড়ে গেলে গাড়ীর চালক প্রাইভেট কারটি পপির উপর দিয়ে চালিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে ইউনাইটেড হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পপি ত্রিপুরাকে মৃত ঘোষনা করেন।

মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ^দ্যিালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধ্যাপক সাদেকা হালিম, গনযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম এর সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরাম, বাংলাদেশ ত্রিপুরা খ্রীস্টিয়ান স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ত্রিপুরা কল্যান সংসদ এর নেতৃবৃন্দ।  

 

এই বিভাগের আরো খবর