ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬

ব্রেকিং:
৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ শাহাদাত কাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ট্রাক-কাভার্ডভ্যান শ্রমিকদের কর্মবিরতি
সর্বশেষ:
শেষ টেস্ট খেলতে কলকাতার পথে টাইগাররা, মূল চ্যালেঞ্জ বোলারদের মনে করেন পেসার আল-আমিন হোসেন পেঁয়াজের পর চালের দাম বাড়ানোর ষড়যন্ত্র চলছে : নাসিম পদ্মা সেতুতে বসেছে ১৬তম স্প্যান আজ কার্গো বিমানে পেঁয়াজের প্রথম চালান আসছে বিটিআরসির কলসেন্টারে ৭ হাজার ৯০৮ অভিযোগ প্রধানমন্ত্রী আজ রাতে দেশে ফিরছেন তিনটি বিলে সম্মতি প্রদান করেছেন রাষ্ট্রপতি

পেঁয়াজে অস্বস্তি, সবজিতে স্বস্তি

প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০১৯  

পঠিত: ৬২
ছবি - সংগৃহীত

ছবি - সংগৃহীত


শীত আশার আগেই স্বস্তি দিচ্ছে সবজির বাজার। কিন্তু বিপরীতে পেঁয়াজে অস্বস্তিতে রয়েছেন ক্রেতারা। সেই সঙ্গে কেজিপ্রতি ১৫ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত কমেছে মুরগির দামও। ডজনপ্রতি ডিমের দাম কমেছে ৫ থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত, তবে অপরিবর্তিত রয়েছে গরু, মহিষ ও খাসির মাংসের দাম। তবে বাড়তি দামে বিক্রি করতে দেখা গেছে আদা ও রসুন।

শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার, আগারগাঁও, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, মিরপুর, শেওড়াপাড়া, কাজীপাড়া ও কচুক্ষেত বাজার ঘুরে দেখা যায় এসব চিত্র।

গত সপ্তাহে ১০০ থেকে ১২০ টাকায় বিক্রি হওয়া কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি। এদিকে বাজারে প্রতি কেজি আদা ও রসুন বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৭০ টাকায়। টমেটোর দাম না কমলেও কিছুটা কমেছে শিমের দাম। শিম বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকা কেজি। প্রতি কেজি পাকা টমেটো বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। গাজর বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকা কেজি। শীতের সবজি ফুলকপি ও বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে প্রতি পিস ৩০ থেকে ৪০ টাকা। আর মুলা বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি।

এদিকে গত সপ্তাহের থেকে কিছুটা দাম বেড়ে বাজারে বরবটি, ঢেঁড়স ও কাঁকরোল বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি। পাশাপাশি পটল-ঝিঙ্গা বিক্রি হচ্ছে একই দামে। তবে বেগুন, করলা ও উস্তা বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজি। আর একটু কম দামের তালিকায় রয়েছে মিষ্টি কুমড়া ও পেঁপে। বাজারে প্রতি কেজি মিষ্টি কুমড়া বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি। আর পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা কেজি।

অপরদিকে গত সপ্তাহে যে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ১২০ টাকায় তা সপ্তাহের ব্যবধানে আজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকায়। এদিকে নতুন পেঁয়াজ ওঠার আগে দাম কমার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে মন্তব্য করেন ব্যবসায়ীরা।

মিরপুরের শেওড়াপাড়া বাজারের এক ক্রেতা বলেন, ২৫০ গ্রাম পেঁয়াজ কিনলাম দাম ৪০ টাকা। এক একটি পেঁয়াজের দাম পড়লো ১০ টাকা!

ফুল বানু নামের এক ক্রেতা বলেন, এখন আর আগের মতো চাহিদা অনুযায়ী বাজার করতে পারি না। মাসের শুরুতে একটা হিসেব অনুযায়ী বাজেট করলেও মাস শেষে সেই হিসাব মেলানো কঠিন।

অন্যদিকে মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারে তেলাপিয়া বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৫০ টাকা, শিং মাছ ৪০০-৭০০ টাকা, মাগুর ১৮০-২০০ টাকা, সুরমা ৪৫০ টাকা, পাঙ্গাস ১৩০ টাকা, রুই ২৩০-৩০০ টাকা, কাতলা ২৫০-৩০০ টাকা, কোরাল ৪৫০-৮০০ টাকা, ছোট ইলিশ ৬৫০-৮০০ টাকা এবং প্রতি কেজি রূপচাঁদা বিক্রি হচ্ছে ৬০০-১২০০ টাকায়।

 

এই বিভাগের আরো খবর