ঢাকা, শুক্রবার   ২৯ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১৩ ১৪২৮

ব্রেকিং:
সাবার জ্ঞাতার্থে বিশেষ অবগতি: শরীফুল ইসলাম, প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার`প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ আর কাজ করছেন না। অতএব, তার সাথে পত্রিকা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যোগাযোগ না করার জন্য অনুরোধ করা হল। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন কারণে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
অবশেষে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘দুর্নীতি’র তদন্ত করছে ‘দুদক’ ২য় ডোজের টিকা প্রয়োগ শুরু, পাবে ৮০ লাখ মানুষ মোহনবাগানের দায়িত্ব ছাড়লেন সৌরভ গাঙ্গুলি চাকরি হারালেন বার্সা কোচ কোম্যান রায়পুরায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৪০ অ্যাপস ছাড়া চুক্তিভিত্তিক রাইড শেয়ারে কঠোর ব্যবস্থা: বিআরটিএ সাবার জ্ঞাতার্থে বিশেষ অবগতি: শরীফুল ইসলাম, প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার`প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ আর কাজ করছেন না। অতএব, তার সাথে পত্রিকা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যোগাযোগ না করার জন্য অনুরোধ করা হল।

প্রকৃতির সান্নিধ্য পেতে খাগড়াছড়িতে পর্যটকদের ভীর

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০২০  

ছবি - সংগৃহীত

ছবি - সংগৃহীত

পাহাড়, ঝর্ণা আর লেকের সৌর্ন্দয্য দেখতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এবার শীতের শুরুতেই খাগড়াছড়িতে রেকর্ড পরিমাণ পর্যটক এসেছেন। তবে পর্যটন কেন্দ্রে অবকাঠামো গড়ে না ওঠা, নিরাপত্তাহীনতা এবং প্রশিক্ষিত গাইডের অভাবে প্রত্যাশিত লক্ষ্য অর্জিত হচ্ছে না।

খাগড়াছড়ির পর্যটনের উন্নয়নে নানামুখী উদ্যোগের কথা জানায় স্থানীয় প্রশাসন।

পাহাড় ,ঝর্ণা ও কৃত্রিম লেক নিয়ে বৈচিত্রময় জেলা খাগড়াছড়ি। এখানকার রিছাং ঝর্ণা, তৈদুছড়া ঝরণা, হাজাছড়া ঝর্ণা, আলুটিলার রহস্যময় সুড়ঙ্গ, জেলা পরিষদ পার্ক, মায়াবিনী লেক, রামগড় কৃত্রিম লেক ও রামগড় ঝুলন্ত সেতুসহ প্রতিটি পর্যটন স্পট এখন পর্যটকদের উপচে পড়া ভিড়।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে নিরাপত্তাহীনতা, দুর্গম এলাকায় প্রাকৃতিক ঝর্ণায় যাওয়ার জন্য পর্যাপ্ত গাইড-সুবিধা না থাকায় জেলায় পর্যটনের বিকাশ হচ্ছে না।

এক পর্যটক বলেন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে এসেছি। আগেও এসেছিলাম। পাহাড় আমাকে সবসময় টানে।

পর্যটন মোটেলসহ মান সম্মত অনেক হোটেল ও রেস্টুরেন্ট থাকলেও তা পর্যটকদের তুলনায় যথেষ্ট নয়। সাজেকে নির্দিষ্ট ভাড়ায় পর্যটকদের যাতায়াতে ভোগান্তি কমাতে কাজ করছে স্থানীয় জীপ সমিতি।


তারা বলেন, বুকিং ভালো হচ্ছে। নির্ধারিত ভাড়াই নেয়া হচ্ছে।

প্রতি বছর পর্যটকদের সংখ্যা বাড়লেও সুযোগ-সুবিধা বাড়েনি তেমন একটা। তবে জেলা প্রশাসন দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

জেলার পর্যটন উন্নয়নে সরকারের নানামুখী উদ্যোগের কথা জানালেন পার্বত্য পরিষদের চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী।

তিনি বলেন, পর্যটকদের জন্য ক্যাবল কারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

ঢাকা থেকে সড়ক পথে খাগড়াছড়ির দূরত্ব ৩১৬ কিলোমিটার। বাসে যেতে ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা লাগে।