ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৬ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১০ ১৪২৮

ব্রেকিং:
দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন ভার্সন`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের অনুরোধ করা হল। নিয়োগ পেতে কেউ অসদুপায়ে আর্থিক লেন-দেন করে থাকলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ (প্রকাশক ও সম্পাদক) দায়ী থাকবেনা।
সর্বশেষ:
স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে ত্যাগীদের নাম পাঠানোর নির্দেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ডিও লেটার জালিয়াতি, সতর্কতা জারি সাহেদকে জামিন দিতে হাইকোর্টের রুল আফগানিস্তান সীমান্তে আগ্রাসনের বিরুদ্ধে তালেবানের হুঁশিয়ারি সুদানের প্রধানমন্ত্রী আব্দাল্লাহ হামদক গৃহবন্দি বাংলাদেশে কেউ সংখ্যালঘু নয়: তথ্যমন্ত্রী

প্রায় দেড় বছর পর আজ খুলল জাবি, উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১ অক্টোবর ২০২১  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।


দেশে করোনা ভাইরাসের কারণে প্রায় দেড় বছরের বেশি সময় বন্ধের পর আজ সোমবার (১১ অক্টোবর) শর্ত সাপেক্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলে দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নিচ্ছেন শহীদ রফিক-জব্বার হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক সোহেল আহমেদ।
 

এদিন সকাল থেকে হলে উঠতে শুরু করেছেন শিক্ষার্থীরা। তবে যাদের করোনা ভাইরাসের এক ডোজ টিকা নেওয়া আছে শুধু তারাই আবাসিক হলে ওঠার সুযোগ পাচ্ছেন।
 

পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে আগে থেকেই হলগুলোর পুরোপুরি প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রায় প্রতিটি হলে নুতন রং করা হয়েছে। সকাল থেকে শিক্ষার্থীদের বরণ করতে হলের গেটে চেয়ার-টেবিল নিয়ে বসেছেন হল কর্তৃপক্ষ। এসময় শিক্ষার্থীদের ফুল, হ্যান্ডস্যানিটাইজার, খাবার এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও সংশ্লিষ্ট হলের লোগো সংবলিত মাস্ক দিয়ে বরণ করে নিতে দেখা গেছে।
 

হলে প্রবেশের সময় চেক করা হচ্ছে শরীরের তাপমাত্রা ও করানো হচ্ছে স্যানিটাইজেশন। এছাড়া শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণ করা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নির্দেশিকাও।

 

প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সালাম-বরকত হলের প্রাধ্যক্ষ আলী আজম তালুকদার বলেন, ‘যেসব শিক্ষার্থীরা আসছে তাদের প্রথমে হাত ধোয়ানো হচ্ছে। এরপর সানিটাইজ করে ফুল, মাস্ক, কলা এবং কেক দিয়ে বরণ করা হচ্ছে।’ বেলা ১২ টা পর্যন্ত ৫০ জনের মতো শিক্ষার্থী হলে উঠে গেছে বলেও জানান তিনি।

 

অধ্যাপক আলী আজম তালুকদার আরও বলেন, ‘একজন শিক্ষকের নেতৃত্বের শিক্ষার্থীরা যার যার কক্ষে প্রবেশ করছে। কক্ষে প্রবেশের আগে কমপক্ষে ১৫ মিনিটি তাদের বাইরে অপেক্ষা করানো হচ্ছে, যাতে কক্ষের ভেতরে থাকা গ্যাস বের হয়ে যেতে পারে। এরপর তারা কক্ষে অবস্থান করতে পারছে।’ এছাড়া এই হলের শিক্ষার্থীদের দুপুরে খাবারের ব্যবস্থাও করা হয়েছে বলে জানান এই প্রাধ্যক্ষ।
 

এদিকে, গণরুম না রাখার ঘোষণা দিলেও শেষ পর্যন্ত সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতে পারেনি জাবি প্রশাসন। দীর্ঘ বন্ধের পরে বিশ্ববিদ্যালয় খুললেও রাখতে হচ্ছে গণরুম। ফলে করোনা সংক্রমণের শঙ্কা বাড়ছে শিক্ষার্থীদের মাঝে।
 

জাবি শিক্ষা বিভাগ সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬টি আবাসিক হলে আসন রয়েছে ৮ হাজার ২৭৮টি। এর বিপরীতে মোট শিক্ষার্থী ১২ হাজার ৯২১ জন। ফলে অংকের হিসাবে ৪ হাজারের বেশি আসন সংকট নিয়ে খুলেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল।

 

তবে, হলের প্রাধ্যক্ষ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মোহা. মুজিবুর রহমান এটিকে আগের মতো গণরুম হিসেবে গণ্য করতে নারাজ। বলেন, ৪৪তম ব্যাচের সব বিভাগের স্নাতকোত্তর পরীক্ষা শেষ হয়নি। তাই ৪৮তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের গণরুমে রাখতে হচ্ছে। তবে, এখানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অল্প সংখ্যক শিক্ষার্থীকে রাখা হবে।

 

এদিকে করোনা থেকে সুরক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াজেদ মিয়া গবেষণা কেন্দ্রের সামনে অস্থায়ী টিকা ক্যাম্প চালু করা হয়েছে। সেখানে যেসব শিক্ষার্থী এসএমএস জটিলতা ও এনআইডি কার্ড না থাকায় টিকা নিতে পারেননি, তাদেরকে টিকা প্রদান করা হচ্ছে।

 

উল্লেখ্য, দেশে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হলে ২০২০ সালের মার্চে অন্য সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জাবি একাডেমিক কার্যক্রম ও আবাসিক হল বন্ধ করে। পরে গত শনিবার (২ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের সভায় আজ ১১ অক্টোবর হল খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরো খবর