ঢাকা, শনিবার   ২৫ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১১ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
পদ্মায় স্বপ্নপূরণের ক্ষণগণনা
১৮দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
০৬মিনিট
:
১০সেকেন্ড
সর্বশেষ:
সবাইকে কৃতজ্ঞতা জানালেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর মধ্য দিয়ে দেশ নতুন যুগে প্রবেশ করেছে: শিক্ষামন্ত্রী মাথা নোয়াইনি, কখনো নোয়াবো না: প্রধানমন্ত্রী জনসভাস্থলে লাখো মানুষের ঢল দেশে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৩ পদ্মা সেতুতে টোল দিলেন প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করা হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই, বললেন প্রধানমন্ত্রী

বানবাসি মানুষের পাশে পুলিশ আছে, সবসময় থাকবে- বেনজীর আহমেদ

নিয়াজ আহমেদ সিপন, লালমনিরহাট

প্রকাশিত: ২২ জুন ২০২২  

ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

 

বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, মাত্র ১২ ঘণ্টায় সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের অনেক জেলায় লক্ষ লক্ষ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছিল। তাদের পাশে থাকতে প্রধানমন্ত্রী নিজেই নির্দেশনা দিয়েছেন। এই দুর্যোগ মোকাবেলা করতে পুলিশ সদস্যরা একত্রে হয়ে বানবাসি মানুষের পাশে ছিল, ভবিসৎতে তাদের পাশে থাকবে।  

 

বুধবার(২২জুন)  লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় দেশের প্রথম পুলিশ ভিত্তিক বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘরের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

 

বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) বলেছেন, পৃথিবীতে অনেক দেশ আছে যাদের গর্ব করার মত কিছুই নেই। বাংলাদেশে গর্ব করার মত অনেক কিছুই রয়েছে। আমরা বলতে পারি পদ্মাসেতু আমাদের সাহসিকতার একটি উদাহরণ। পৃথিবীর দ্বিতীয় খরস্রোতর নদী পদ্মার উপরে সেতু করা কাল্পনিক বিষয় ছিলো। যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে বাস্তবায়ন হয়েছে। পদ্মাসেতু বিশ্বে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।

 

ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, পৃথিবীতে অনেক দেশ আছে যাদের গর্ব করার মত কিছুই নেই। বাংলাদেশে গর্ব করার মত অনেক কিছুই রয়েছে। আমরা বলতে পারি পদ্মাসেতু আমাদের সাহসীকতার একটি উদাহরণ। পৃথিবীর দ্বিতীয় খরস্রোতর নদী পদ্মার উপরে সেতু করা কাল্পনিক বিষয় ছিলো। যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে বাস্তবায়ন হয়েছে। পদ্মাসেতু বিশ্বে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।

 

তিনি আরো বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ, পতাকা ও জাতিস্বত্তা পেয়েছি। স্বাধীনতার ৫০ বছর পর ক্ষুধা দারিদ্রমুক্ত দেশ পেয়েছি। করোনা না আসলে এতদিনে ক্ষুধাকে জাদুঘরে রেখে দেয়া হতো। স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশকে দেখেছি চৈত্র মাস ভাত খাওয়ার কথা চিন্তাই করা যেত না। কচু-শাকপাতা খেয়ে দিন কাটাতো মানুষ, সেই বাংলাদেশ এখন আর নেই। আমরা খাদ্যে স্বয়ং-সম্পন্ন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিলো ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ। যা আজ বাস্তবায়ন হয়েছে।

 

এর আগে পুলিশ প্রধান বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘরের ফলক উন্মোচন করে বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘর ও পুলিশ শিশু গ্যালারী পরিদর্শন করে হাতীবান্ধা থানা ভবনে একটি গাছের চারা রোপণ করেন। এ সময় তিনি পুলিশ নারী ব্যারাক ও পুলিশ লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজের উদ্বোধন করেন। পরে দেশের বহুল আলোচিত দহগ্রাম-আঙ্গরপোতা পরিদর্শন শেষে পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে এক বিশেষ বৈঠক করে ঢাকায় চলে যান তিনি।

 

অনুষ্ঠানে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার আবিদা সুলতানার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য। অনুষ্ঠানে রংপুর বিভাগের ৮জেলার পুলিশ সুপারসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

এই বিভাগের আরো খবর