ঢাকা, শুক্রবার   ২৯ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১৩ ১৪২৮

ব্রেকিং:
সাবার জ্ঞাতার্থে বিশেষ অবগতি: শরীফুল ইসলাম, প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার`প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ আর কাজ করছেন না। অতএব, তার সাথে পত্রিকা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যোগাযোগ না করার জন্য অনুরোধ করা হল। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন কারণে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
অবশেষে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘দুর্নীতি’র তদন্ত করছে ‘দুদক’ ২য় ডোজের টিকা প্রয়োগ শুরু, পাবে ৮০ লাখ মানুষ মোহনবাগানের দায়িত্ব ছাড়লেন সৌরভ গাঙ্গুলি চাকরি হারালেন বার্সা কোচ কোম্যান রায়পুরায় দু’গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৪০ অ্যাপস ছাড়া চুক্তিভিত্তিক রাইড শেয়ারে কঠোর ব্যবস্থা: বিআরটিএ সাবার জ্ঞাতার্থে বিশেষ অবগতি: শরীফুল ইসলাম, প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার`প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ আর কাজ করছেন না। অতএব, তার সাথে পত্রিকা সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যোগাযোগ না করার জন্য অনুরোধ করা হল।

বাফুফে নির্বাচন আজ

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০২০  

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

 

আজ ৩ অক্টোবর শনিবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বহুল প্রতীক্ষিত বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) নির্বাচন। এই নির্বাচনে সভাপতি, সিনিয়র সহসভাপতি, সহসভাপতি ও সদস্যসহ মোট ২১টি পদের জন্য মনোনয়নপত্র তুলেছেন ৪৭ জন প্রার্থী।

 

রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে আজ দুপুর ২টা থেকে শুরু হবে ভোট গ্রহণ, চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। আগামী চার বছরের জন্য ১৩৯ জন কাউন্সিলর তাঁদের নির্বাচিত প্রতিনিধি ঠিক করবেন।

 

সভাপতি পদে সালাউদ্দিনের বিপক্ষে এককভাবে লড়বেন শফিকুল ইসলাম মানিক। গত ১২ বছর বাফুফের সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করা বাদল রায়েরও একই পর্দে নির্বাচন করার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নাম প্রত্যাহার না করায় ভোটের ব্যালটে নাম থাকবে বাদল রায়ের। তাই সভাপতি পদের লড়াইয়ে নাম আছে কাজী সালাউদ্দিন, শফিকুল ইসলাম মানিক ও বাদল রায়ের। কিন্তু মূল মঞ্চের লড়াইটা হতে যাচ্ছে মানিক বনাম সালাউদ্দিনের।

 

করোনা মহামারীর কারনে বাফুফে নির্বাচনে থাকতে পারছেন না ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার কোনো প্রতিনিধি। তাই নির্বাচন পর্যপক্ষণের জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের (এনএসসি) যুগ্ম সচিব তৌহিদুর রহমানকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের একটি মনিটরিং সেল গঠন করা হয়। নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে কি না, তা পর্যবেক্ষণ করবে এই সেল।

 

নির্বাচনী ইশতেহারে ৩৬টি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সালাউদ্দিন। এর মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশকে ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ১৫০-এর মধ্যে নিয়ে আসা। অবশ্য এর আগেও বাংলাদেশকে ফিফা বিশ্বকাপ খেলানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সালাউদ্দিন। কিন্তু বিশ্বকাপ তো দূরের কথা, উল্টো ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে তাঁর সময়েই বেশি অবনমন হয়েছে বাংলাদেশ ফুটবলের। এ ছাড়া ইশতেহারে জাতীয় ফুটবল দল, ঘরোয়া ফুটবল, নারী ফুটবল, উন্নয়ন প্রকল্প ও বিভিন্ন টেকনিক্যাল দিকগুলোর উন্নয়নের ঘোষণা দিয়েছেন সালাউদ্দিন। পাশাপাশি বাফুফের দুটি টার্ফের নতুন করে সংস্কার, মিডিয়া সেন্টার নির্মাণ ও বাফুফে ভবনে আধুনিক জিম স্থাপনসহ লম্বা ঘোষণা দিয়েছেন সালাউদ্দিন।

 

সভাপতি পদে লড়তে যাওয়া মানিকের প্রতিশ্রুতি ২১টি। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো ২০৩৩ সালে শক্তিশালী অলিম্পিক দল গড়ে অলিম্পিক গেমসে খেলার যোগ্যতা অর্জন করা। নির্বাচনে জিততে পারলে জেলা ফুটবল ও পাইওনিয়ার লিগ থেকে প্রিমিয়ার পর্যন্ত লিগ টুর্নামেন্টকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আয়োজন করার লক্ষ্য তাঁর। এ ছাড়া বঙ্গবন্ধু-তনয় শেখ জামালের নামে প্রতিবছর অনূর্ধ্ব-১৭ টুর্নামেন্ট আয়োজন করা এবং পাতানো খেলা বন্ধ করার ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানিয়েছেন মানিক।
 

দুটি পরিষদেরই লক্ষ্য বাংলাদেশের ফুটবলকে এগিয়ে নেওয়া। কিন্তু, আপাতত ভোটের মঞ্চে এগিয়ে আছে সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে থাকা সম্মিলিত পরিষদ। প্রচারেও এগিয়ে ছিল তারা। তিনবারের অভিজ্ঞতার সঙ্গে হেভিওয়েট প্রার্থী—তাদের বিপক্ষে সমন্বয় পরিষদ কিংবা শফিকুল ইসলাম মানিকের সফলতা আসে কি না, সেটাই দেখার অপেক্ষায় ফুটবল ভক্তরা।

এই বিভাগের আরো খবর