ঢাকা, রোববার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ১০ ১৪২৮

ব্রেকিং:
আজ থেকে বিমানবন্দরে করোনা টেস্ট রোহিঙ্গাদের ফেরানোর পরিবেশ তৈরি করতে হবে মিয়ানমারকে দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন ভার্সন`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের অনুরোধ করা হল। নিয়োগ পেতে কেউ অসদুপায়ে আর্থিক লেন-দেন করে থাকলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ (প্রকাশক ও সম্পাদক) দায়ী থাকবেনা।
সর্বশেষ:
জাতিসংঘের সামনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমাবেশ নিষিদ্ধ ৮ খেলোয়াড় নিয়ে দল ঘোষণা ব্রাজিলের মমেক ও রামেকে আরও ১১ জনের মৃত্যু বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ২৩ কোটি ছাড়াল

যেন ভেঙে পড়ার ক্ষণ গুনছে মাধবপুর হাসপাতালের ব্রিজ

শেখ জাহান রনি, মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র।

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র।

 

হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডে মাধবপুর সদর হাসপাতাল যাওয়ার জন্য একমাত্র ব্রীজটি যাতায়াতের জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যাওয়া জন্য একমাত্র ব্রীজ হচ্ছে এই ব্রীজটি। দীর্ঘদিন ধরে হাসপাতালে যাওয়ার জন্য মাধবপুর উপজেলা কমপ্লেক্সের ভিতরের রাস্তাটি ব্যবহার করা হতো। কিন্তু কিছুদিন পূর্বে উপজেলা কমপ্লেক্সের নিরাপত্তার স্বার্থে রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়া হয়। ফলে রোগী নিয়ে হাসপাতাল যাওয়ার জন্য মাধবপুর বাজারে নতুন করে নির্মিত মাধবপুর-নাসিরনগর রাস্তাটি ব্যবহার করতে হচ্ছে ভুক্তভোগীদের। নির্মিত রাস্তা দিয়ে হাসপাতাল যাওয়ার জন্য ঝুঁকিপূর্ণ একমাত্র ব্রীজটির উপর দিয়ে যেতে হয়। ব্রীজটি খুবই সরু হওয়ায় একসাথে দুইটি গাড়ী চলাচল করতে পারে না। একটি গাড়ি পাস হওয়ার পর আরেকটি পাস হতে হয়।যার ফলে অনেক ইমার্জেন্সি রোগী নিয়ে হাসপাতাল যেতে বাধাগ্রস্ত হয়। দীর্ঘদিন পূর্বে ব্রীজটি নির্মিত হওয়ায় ব্রীজের পাশের রেলিংগুলো ভেঙ্গে গেছে।ব্রীজের নীচের পিলারগুলোও ভেঙ্গে পরে যাচ্ছে। মাধবপুর সদর হাসপাতালে যাওয়ার জন্য আর অন্য কোন রাস্তা বা ব্রীজ না থাকায় বাধ্য হয়েই ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজ দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে জনসাধারণের। ব্রীজটি পূর্ণ নির্মাণ না করলে ভোগান্তি চরম পর্যায়ে পৌছে যাবে।

 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ব্রীজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।হাসপাতালে যাওয়ার জন্য একমাত্র ব্রীজ এটি।কিন্তু ব্রীজটি সরু ও জীর্ণশীর্ণ হওয়ার কারনে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।ব্রীজটি খুব শীগ্রই পূর্ণ নির্মাণ না করা হলে ঘটে যেতে পারে অনেক বড় ধরনের দুর্ঘটনা।ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজটির ব্যাপারে মাধবপুর উপজেলার পঃপঃ কর্মকর্তা ইশতিয়াক মামুন বলেন, ব্রীজটি দ্রুত নির্মাণ করা প্রয়োজন। হাসপাতালে আসার জন্য এটিই একমাত্র ব্রীজ।রোগী নিয়ে হাসপাতাল আসতে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়।পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা চেয়ারম্যান কে অবগত করেছি উনারা যেনো ব্রীজটির দিকে সুদৃষ্টি দেয়।

 

এই ব্যাপারে ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ জহিরুল ইসলাম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমরা ইতিমধ্যে ব্রীজটি পূর্ণ নির্মাণের জন্য প্রস্তাব দিয়েছি।সরকারি প্রজেক্ট পাওয়া গেলে খুব তাড়াতাড়ি নির্মাণ করা যাবে।ব্রীজটি  ব্রীজ পূর্ন নির্মানের ব্যাপারে পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মোঃসহিদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমরা এমজিএসপি প্রজেক্টের আওতায় উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রস্তাব পাঠিয়েছি।উর্ধতন কর্তৃপক্ষ থেকে প্রজেক্টটি পাশ হওয়ার পরই আমরা ব্রীজটি নির্মাণ করতে পারবো।

 

মাধবপুর পৌরসভার মেয়র মোঃ হাবিবুর রহমান মানিক জানান, আমরা ব্রীজের নিচ দিয়ে প্রবাহিত খালের মাঝে ড্রেইন নির্মাণ করার জন্য উদ্যোগ নিয়েছি। ইতিমধ্যে এমজিএসপি প্রকল্পের আওতায় প্রস্তাব পাঠিয়েছি। প্রস্তাবটি পাশ হলেই ড্রেইনের সাথে ব্রীজটি পূর্ণ নির্মাণ করা হবে।যদি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ দ্রুত প্রস্তাব পাশ করেন তাহলে আমরা খুব দ্রুতই ব্রীজ নির্মানের কাজ শুরু করতে পারবো।


 

এই বিভাগের আরো খবর