ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
পদ্মায় স্বপ্নপূরণের ক্ষণগণনা
১৮দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
০৬মিনিট
:
১০সেকেন্ড
সর্বশেষ:
রাজধানীতে অজ্ঞাত গাড়ির ধাক্কায় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী নিহত ফের করোনায় আক্রান্ত ফখরুল মুরগির দাম কেজিতে কমেছে ২০-২৫ টাকা পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে যানজট সৌদি পৌঁছেছেন ৩৮ হাজার ৮৮৯ জন হজযাত্রী, ৬ জনের মৃত্যু পদ্মা সেতুতে প্রথম টোল দিয়ে পাড়ি দিল মোটরসাইকেল পদ্মা সেতু পারাপারে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসি

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

 

বরগুনার রিফাত হত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ৬ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার দুপুরে এ হত্যাকান্ডের মামলার রায় ঘোষণা করেন বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালত। এ মামলায় ৪ জনকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়েছে।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট ভূবন চন্দ্র হালদার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

যাদের ফাঁসির আদেশ দেওয়া হয়েছে সেই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন- রিফাত ফরাজী, টিকটক হৃদয়, রাব্বি আকন, হাসান, সিফাত ও আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। বেকসুর খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- মুসা, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, সাগর ও কামরুল হাসান সায়মুন।

মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর সকাল ৯টার দিকে মোটরসাইকেলে করে মিন্নিকে নিয়ে আদালতে আসেন। এসময় মিন্নির মুখে সাদা মাস্ক ও সাদা থ্রিপিছ পরিহিত ছিলেন।

 

করোনার সংক্রমণের কারনে আদালত বন্ধ থাকাসহ দীর্ঘ এক বছরের বিচারিক কার্যক্রম শেষে আজ বুধবার রায়ের দিন ধার্য করেন বিচারক। বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামানের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

 

২০১৯ সালের জুন মাসের ২৬ তারিখে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে মানুষের উপস্থিতিতে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। রিফাতের এই হত্যাকান্ডের ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে ভাইরাল হয়ে যায়।

 

ঘটনার পরদিন ১২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও পাঁচ-ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ। ওই বছরের ১ সেপ্টেম্বর ২৪ জনকে অভিযুক্ত করে প্রাপ্ত ও অপ্রাপ্তবয়স্ক দু’ভাগে বিভক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দেয় পুলিশ।

 

রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক আসামিরা হলেন, রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি, আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন, মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত, রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়, মো. হাসান, মো. মুসা, আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি, রাফিউল ইসলাম রাব্বি, মো. সাগর এবং কামরুল ইসলাম সাইমুন।

এই বিভাগের আরো খবর