Berger Paint

ঢাকা, বুধবার   ১৫ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ৩১ ১৪২৭

ব্রেকিং:
ইতালিতে বাংলাদেশিদের আজীবন নিষিদ্ধের দাবি কট্টরপন্থীদের বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ৮১ হাজারের বেশি বোরকা পরে নৌকায় চড়ে ভারত পালাচ্ছিলেন সাহেদ রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ অস্ত্রসহ গ্রেফতার
সর্বশেষ:
ঈদের জামাত নিয়ে ১৩ দফা নির্দেশনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে কোটি টাকা জরিমানা সৌদির পাকিস্তানে বন্দুকধারীদের হামলা, ৮ সেনা নিহত

রোয়াংছড়িতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা, ঘাতক স্বামী আটক

হ্লাছোহ্রী মারমা, রোয়াংছড়ি (বান্দরবান)

প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০২০  

পঠিত: ৩৮১৫
রোয়াংছড়িতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

রোয়াংছড়িতে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি লাপাইগয় পাড়াতে অংমেসিং মারমা (৩০) কে ঘাতক স্বামী ক্যনুঅং মারমা (৩৮) পিটিয়ে হত্যা করেছে। পুলিশ ও পাড়াবাসীদের সূত্রে জানা গেছে, নিহত ব্যক্তি রোয়াংছড়ি উপজেলা ৩নং আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড কচ্ছপতলি পাড়ার বাসিন্দা থুইসাচিং মারমার (জদিরা) মেয়ে অংমেসিং (৩০) মারমা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান গত সোমবার (২১ জানুয়ারী ২০২০) কচ্ছপতলি পাড়ার বাসিন্দা নিহত অংমেসিং মারমার দাদা মৃত্যুবরন করায় দাদাকে শেষবার দেখতে বাবার বাড়ীতে এসেছিলেন।  সেদিন রাত ঘনিয়ে আসায় স্বামীর বাড়ীতে না ফিরে কচ্ছপতলির লাপাইগয় পাড়া বাবার বাড়ীতে থেকে যান অংমেসিং। সেটায় তার জন্য কাল হয়েছে। স্ত্রী বাড়ীতে না পৌঁছায় রাতে ঠিক সাড়ে ১০টার দিকে স্বামী ক্যনুঅং মারমা কচ্ছপতলির শ্বশুড় বাড়িতে এসে স্ত্রী অংমেসিং মারমাকে নিজের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। বাবার বাড়ীতে থেকে যাওয়ার কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে বাড়িতে পৌঁছেই স্ত্রী অংমেসিং মারমাকে খুন করেন ধারণা এলাবাসীর। পরে ঘাতক স্বামী নিজ স্ত্রীকে মারার খবর পাড়াবাসীকে জানায়। এলাকাবাসী অংমেসিং মারমার মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে রোয়াংছড়ি থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘাতক স্বামী ক্যনুঅং মারমাকে প্রথমে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

নিহত অংমেসিং মারমার বাবা থুইসাচিং মারমা অভিযোগ করে বলেন, বিনা কারণে আমার মেয়েকে আমার বাড়ী থেকে রাতের অন্ধকারে ডেকে নিয়ে ঘাতক স্বামী ক্যনুঅং মারমাকে খুন করেছে। আমি অংমেসিং মারমার ঘাতক ক্যনুঅং মারমার সবোর্চ্চ শাস্তি চান তার বাবা।

রোয়াংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: শরিফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রাত প্রায় ১১টা দিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নিহত অংমেসিং মারমার লাশ পড়ে থাকতে দেখেন তারা। পুলিশ আরো বলছে সত্যতা যাচাইয়ের জন্য অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশ।  অন্য দিকে তদন্তের জন্য নিহতের লাশ থানার মর্গে নিয়ে যায় হয়।

অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আরো বলেন, অংমেসিং মারমাকে খুন করা হয়েছে বলে নিহতদের পরিবারে দাবি। তবে নিহত ব্যক্তির গায়ে কোন রকম রক্তক্ষরণ বা আঘাতের চিন্হ পাওয়া যায়নি বলে জানান পুলিশের সূত্র। তিনি বলেন তদন্তের পর বিস্তারিত ঘটনা জানা যাবে। ঐ দিন ঘটনাস্থলে উপজেলা চেয়ারম্যান চহাইমং মারমা ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: রেজাউল করিম পরিদর্শন করেন। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।