Berger Paint

ঢাকা, সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২,   অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ আবারও পেছালো যে কোনো মূল্যে শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হবে: প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামে শিশু আয়াত হত্যা : আসামি আবীর ফের রিমান্ডে ৫০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কেউ পাস করেনি এসএসসিতে পাসের হার ৮৭.৪৪ শতাংশ সাংহাইয়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, বিক্ষোভ

শরীরের যেসব অঙ্গের ক্ষতি করে অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস

প্রতিদিনের চিত্র বিডি ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০২২  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ, যা মাথা থেকে পা পর্যন্ত বিভিন্ন অঙ্গের ক্ষতি করে থাকে।

 

মস্তিষ্কে ক্ষতি : ডায়াবেটিস অনিয়ন্ত্রিত থাকলে স্ট্রোক হতে পারে, রক্তনালি ফেটে গিয়ে রক্তক্ষরণ হয়ে বা মস্তিষ্কের রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে দুই ভাবেই স্ট্রোক হতে পারে।

 

চোখে ক্ষতিকর প্রভাব : ডায়াবেটিস থেকে চোখে হতে পারে ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথি। রেটিনোপ্যাথিতে চোখের রেটিনার রক্তনালি বেড়ে যেতে পারে। রক্তক্ষরণ হয়ে অন্ধত্বও দেখা দিতে পারে। এ ছাড়াও ডায়াবেটিস থেকে চোখে ছানি পড়তে পারে বা গ্লুকোমা হতে পারে।

 

মুখে ঘা : ডায়াবেটিস রোগীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে বলে সহজেই মুখে ঘা হতে পারে।

 

হার্ট অ্যাটাক : ডায়াবেটিক রোগীদের হার্ট অ্যাটাকের হার স্বাভাবিক মানুষের চেয়ে অনেক বেশি। রক্তে সুগারের মাত্রা বেশি থেকে হার্টের রক্তনালি ব্লক হয়ে হার্ট অ্যাটাক হতে পারে।

 

ডায়াবেটিক ফুট বা ডায়াবেটিস থেকে পায়ে ঘা : ডায়াবেটিক রোগীদের পায়ের সেনসেশন অন্য মানুষের মতো ভালো থাকে না। তাই সামান্য আঘাত হতে তা বড় ঘায়ে পরিণত হতে পারে, যাকে বলা হয় ডায়াবেটিক ফুট। এতে পা পর্যন্ত কেটে ফেলতে হতে পারে। ডায়াবেটিক ফুট প্রতিরোধে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

 

ডায়াবেটিস থেকে কিডনি রোগ : অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস থেকে কিডনির ক্রিয়েটিনিন বাড়তে পারে এবং এক পর্যায়ে কিডনি বিকল হয়ে ডায়ালিসিস করানোর প্রয়োজন দেখা দিতে পারে। ডায়াবেটিস থেকে কিডনি রোগ প্রতিরোধে ব্লাড প্রেসার, ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। প্রস্রাবে যেন ইনফেকশন না হয়, এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ব্যথার ওষুধ খাওয়া যাবে না।

 

ইরেক্টাইল ডিসফাংশন বা যৌন সমস্যা : ডায়াবেটিস থেকে যৌন ইচ্ছা, আগ্রহ কমে যেতে পারে, পুরুষাঙ্গ শক্ত হচ্ছে না, পুরুষের এ ধরনের যৌন সমস্যা হতে পারে। প্রায় ৪০-৫০ শতাংশ ডায়াবেটিস রোগী ইরেক্টাইল ডিসফাংশনে ভোগে।

 

ডায়াবেটিস থেকে নার্ভের সমস্যা : ডায়াবেটিস থেকে স্নায়ু বা নার্ভ নষ্ট হয়ে হাত-পা জ্বালাপোড়া, সুচের মতো সেনশন বা পিঁপড়া হাঁটছে—এমন অনুভূতি হতে পারে। একে বলে ডায়াবেটিক নিউরোপ্যাথি।

 

ডায়াবেটিসের জটিলতা থেকে বাঁচতে ১ থেকে ৩ মাস অন্তর অন্তর ডায়াবেটিস ও হরমোন রোগ বিশেষজ্ঞের (এন্ডোক্রাইনোলজিস্টের) পরামর্শ নিতে পারেন।