ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৬ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১০ ১৪২৮

ব্রেকিং:
দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন ভার্সন`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের অনুরোধ করা হল। নিয়োগ পেতে কেউ অসদুপায়ে আর্থিক লেন-দেন করে থাকলে তার জন্য কর্তৃপক্ষ (প্রকাশক ও সম্পাদক) দায়ী থাকবেনা।
সর্বশেষ:
স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে ত্যাগীদের নাম পাঠানোর নির্দেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ডিও লেটার জালিয়াতি, সতর্কতা জারি সাহেদকে জামিন দিতে হাইকোর্টের রুল আফগানিস্তান সীমান্তে আগ্রাসনের বিরুদ্ধে তালেবানের হুঁশিয়ারি সুদানের প্রধানমন্ত্রী আব্দাল্লাহ হামদক গৃহবন্দি বাংলাদেশে কেউ সংখ্যালঘু নয়: তথ্যমন্ত্রী

শাহরুখপুত্রের সঙ্গে গ্রেপ্তার কে এই মুনমুন?

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০২১  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

শুধু শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানই সেদিন ধরা পড়েননি, ওই রাতে আরও ৭ জন আটক হন বলে জানা গেছে। কিন্তু এই ৭ জন আলোচনায় নেই, এক আছেন আরিয়ান, তার সঙ্গে আছেন তারই বান্ধবী হিসেবে পরিচয় পাওয়া মুনমুন ধমেচা। আরিয়ানকে কে না চেনে, বলিউড বাদশাহর ছেলে বলে কথা! কিন্তু মুনমুনকে কয়জন চেনে?

 

তাহলে কে এই মুনমুন?
এই প্রশ্ন থেকেই ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, মুনমুন ধমেচার স্যানিটারি প্যাডের মধ্যে মাদক লুকানো ছিল বলে জানিয়েছে ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। তবে আলোচনার বিষয়বস্তু শুধু এটুকুই নয়। এই তরুণীর সঙ্গে ২৩ বছর বয়সী আরিয়ানের গভীর বন্ধুত্ব রয়েছে বলেও ইতোমধ্যেই ফিসফাস শুরু হয়েছে।

 

জানা গেছে, মধ্যপ্রদেশের এক ব্যবসায়ী পরিবারের মেয়ে মুনমুন ধমেচা। পেশায় তিনি একজন মডেল। এই কাজের সূত্রেই বলিউড তারকাদের সঙ্গে তার ওঠাবসা। গুরু রান্ধাওয়া, অর্জুন রামপালের মতো তারকাও রয়েছেন সেই তালিকায়।

 

ইনস্টাগ্রামেও বেশ জনপ্রিয় মুনমুন। সেখানে তার অনুসারীর সংখ্যা ১০ হাজারের কিছু বেশি। ২০১৪ সাল থেকে এই যোগাযোগ মাধ্যমটি তিনি ব্যবহার করছেন। এখন পর্যন্ত তার পোস্টের সংখ্যা ১৩৪টি। তবে সেগুলোর মধ্যে কোনো ছবিতেই শাহরুখপুত্রের সঙ্গে দেখা যায়নি তাকে।

 

এদিকে আটকের পর এনসিবির জিজ্ঞাসাবাদে মাদক নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন মুনমুন। জানিয়েছেন, একটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সংলগ্ন একটি হোটেলের কাছ থেকে মাদক সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। আরিয়ানের সঙ্গে তাকেও ইতোমধ্যে গ্রেফতার দেখিয়েছে এনিসিবি। সোমবার আরিয়ানের সঙ্গে তাকেও আদালতে তোলা হয়েছে। তাকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এনসিবি হেফাজতে চায় সংস্থাটি।

 

শনিবার রাতে আরিয়ানের সঙ্গে তার আরেক বন্ধু আরবাজ মার্চেন্টও গ্রেফতার হন। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের পর এনসিবি মুম্বাই থেকে শ্রেয়াস নায়ার নামে এক মাদক কারবারিকে আটক করে। শ্রেয়াসের নাম পাওয়া যায় আরিয়ান ও আরবাজের মোবাইল থেকে। গত কয়েকদিনে বেশ কয়েকবার ড্রাগ নিয়ে কথোপকথন হয়েছে তাদের মধ্যে।

 

এনসিবি জানায়, শ্রেয়াস নায়ারেরও শনিবার রাতের ওই মাদক পার্টিতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কিছু কারণে তিনি যেতে পারেননি।

 

সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, আরিয়ান এবং আরবাজ এনসিবিকে সঠিকভাবে বলছেন না, কে তাদের মাদক সরবরাহ করতেন। তবে আরবাজ বলেছেন, গোয়ার একজন মাদক কারবারি তাকে মাদক সরবরাহ করতেন।

এই বিভাগের আরো খবর