ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
পদ্মায় স্বপ্নপূরণের ক্ষণগণনা
১৮দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
০৬মিনিট
:
১০সেকেন্ড
সর্বশেষ:
রাজধানীতে অজ্ঞাত গাড়ির ধাক্কায় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী নিহত ফের করোনায় আক্রান্ত ফখরুল মুরগির দাম কেজিতে কমেছে ২০-২৫ টাকা পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে যানজট সৌদি পৌঁছেছেন ৩৮ হাজার ৮৮৯ জন হজযাত্রী, ৬ জনের মৃত্যু পদ্মা সেতুতে প্রথম টোল দিয়ে পাড়ি দিল মোটরসাইকেল পদ্মা সেতু পারাপারে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

শিশুর জন্য নিরাপদ খেলনা

প্রকাশিত: ১ মার্চ ২০২০  

ছবি-সংগৃহীত

ছবি-সংগৃহীত

প্রত্যেকটি শিশুই সাধারণত খেলতে ভালোবাসে। সব খেলনা শিশুর জন্য নিরাপদ নয়। তবে কিছু খেলনা রয়েছে শিশুর জন্য বিপদজনক

কিছু খেলনা রয়েছে যা শিশুর জন্য নিরাপদ। ঝুমঝুমি ও বিভিন্ন আকার ও রঙবেরঙের খেলনা তাদের দৃষ্টির বিকাশ করে। আবার কিছু খেলনা শিশুর জ্ঞান উদ্দীপ্ত করে।

তবে কিছু খেলনা বা পণ্য আছে, যেগুলো শিশুদের জন্য বিপজ্জনক। তাই বিপজ্জনক খেলনাগুলো শিশুর হাতের নাগালের বাইরে রাখতে হবে।

আসুন জেনে নিই যেসব খেলনা শিশুদের জন্য বিপজ্জনক-

১. কিছু ছোট খেলনা আছে, যা ব্যাটারি দ্বারা চালিত। এই ধরনের খেলনা শিশুরা পছন্দ করলেও ঘটনাক্রমে কোনো খেলনা গ্রাস করে শিশুর শ্বাসরোধ হতে পারে।

২. তাড়াতাড়ি দাঁড়াতে ও হাঁটা শেখাতে বেবি ওয়াকার অনেকে।কিন্তু বেবি ওয়াকার দেখতে যতটা সহজ মনে হয়, সেটি ততটা নিরাপদ নয়। কারণ বেবি ওয়াকার দ্বারাও শিশু আঘাত পেতে পারে।

৩. খেলনার কোনো ছোট অংশ কোনো বাচ্চার নাক বা মুখের ভেতরে আটকে যেতে পারে। গাড়ির যন্ত্রাংশ বা পুতুলের বিভিন্ন অংশ থেকে শিশুকে দূরে রাখুন।

৪. ক্রিব বাম্পার শিশুর জন্য খুবই আরামদায়ক ও সুরক্ষিত। তবে এই নরম প্যাডগুলো শিশুর জন্য অনিরাপদ ও এটি শ্বাসরোধের কারণ।

৫. ঘুমানোর ধরন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের মতে, ঘুমের অবস্থান শিশুর পক্ষে ক্ষতিকারক হতে পারে, যা শ্বাসরোধ ও মৃত্যুর কারণ হতে পারে। রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রগুলো দেখিয়েছে যে, ১৯৯৭ সাল থেকে কমপক্ষে ১৩টি শিশু ঘুমন্ত অবস্থায় মারা গেছে।

শিশুর জন্য নিরাপদ খেলনা

১. ১.৭৫ ইঞ্চি ব্যাসের কম হলে সেই খেলনা কেনা এড়িয়ে চলুন।

২. ব্যাটারিচালিত খেলনা এড়িয়ে চলুন।

৩. লম্বা হ্যান্ডেলসহ খেলনাগুলো কিনবেন না।

৪. ক্রিব টয়েজ ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন।