Berger Paint

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২,   আশ্বিন ২০ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
ভারতে বিয়ের অনুষ্ঠানের বাস খাদে পড়ে ২৫ মৃত্যু আগামী মাসে জাপান যাবেন প্রধানমন্ত্রী শুভ জন্মদিন মাশরাফি জেলেনস্কির সাথে মোদির ফোনালাপ, পরমাণু হুমকি নিয়ে উদ্বেগ ১৫০ আসনে ইভিএম ব্যবহার নিয়েও অনিশ্চয়তায় সিইসি দুই লাখ নতুন সেনা যোগ দিল রুশ বাহিনীতে আবারও করোনায় আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী

সম্পত্তির দ্বন্দ্বে বৃদ্ধাকে হত্যার অভিযোগ

এইচ.এম. সিরাজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ৪ অক্টোবর ২০২০  

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র

ছবি- প্রতিদিনের চিত্র

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বাড়ির জায়গা নিয়ে দ্বন্ধের জেরে গভীর রাতে হামলা চালিয়ে বৃদ্ধা সেলিনা বেগমকে (৫২) হত্যার অভিযোগ মিলেছে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হওয়া ওই বৃদ্ধার স্বামী কিতাব আলীকে (৬২) ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। শনিবার (৩অক্টোবর) রাতে উপজেলার পাকশিমুল গ্রামে ঘটে এই ঘটনা।


নিহতের পরিবার, এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পাকশিমুল গ্রামের আদমের গোষ্ঠির প্রতিবেশী বরকত আলী, জুলমত আলী, কিতাব আলী এবং মোতালেব মিয়ার পরিবারের মধ্যে বহুদিন ধরে বাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে বহুবার বিচার সালিশও হয়েছে। নিহত সেলিনা বেগমের বড় মেয়ে রহিমা বেগম জানান, শনিবার রাত অনুমান ১২টার দিকে মোতালিব মিয়া দলবল নিয়ে তাদের ঘরের দরজায় এসে ডাক দেয়। এতো রাতে কে এসেছে দেখতে তার বাবা কিতাব আলী দরজা খুলেন। কিছু বোঝার আগেই কিতাব আলীকে গলা চেপে ধরে দুর্বৃত্তরা। এসময় স্বামীকে বাঁচাতে বৃদ্ধা স্ত্রী সেলিনা বেগম এগিয়ে এসে চিৎকার দিলে তাকে মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। ঘটনার শোর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন হামলার শিকার হওয়া কিতাব আলীকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে মর্গে।


সহকারি পুলিশ সুপার (এএসপি সরাইল সার্কেল) আনিছুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, 'অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গেছেন। এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। আমরা বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনা করছি।'

এই বিভাগের আরো খবর