Berger Paint

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৬ ১৪২৭

ব্রেকিং:
অবৈধদের নাগরিকত্ব দিতে আট বছর মেয়াদি প্রক্রিয়া আনছেন বাইডেন
সর্বশেষ:
ঘন কুয়াশার কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ। নারী সাক্ষীর সঙ্গে অশোভন আচরণে বিচারক প্রত্যাহার আজ জিয়াউর রহমানের ৮৫তম জন্মবার্ষিকী

হোটেলে নববধূকে রেখে পালাল পুলিশ, লাশ উদ্ধার

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬ জানুয়ারি ২০২১  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

কনস্টেবল জাহিদুল ইসলাম রুবেলের সঙ্গে বিয়ে হয় কুমিল্লার মেহনাজ জেরিন নিপার। ৩ জানুয়ারি গ্রামের বাড়ি থেকে স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় আসেন নিপা। স্ত্রীকে নিয়ে ওঠেন রাজধানীর উত্তর কমলাপুরের হোটেল সিটি প্যালেস ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি আবাসিক হোটেলে। আর সেই হোটেল থেকেই না ফেরার দেশে গেলেন মেহনাজ জেরিন নিপা।

 

স্বামী রুবেলই তাকে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করেছে। এমনটিই অভিযোগ করলেন নিপার স্বজনরা।

 

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই ‘তরুণীর মৃতদেহ’ উদ্ধার করা হয়। এ সময় ভেতর থেকে ‘রুমের দরজা বন্ধ’ করা ছিল। গত ৩ জানুয়ারি ওই রুমটি ভাড়া নেয় নীপার স্বামী।

 

গত ৩ জানুয়ারি তারিখে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ২ জন হোটেলের ওই রুমটি ভাড়া নেয়। এরপর স্বামী নিজেকে অসুস্থ দাবী করে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কথা বলে হোটেল থেকে চলে যায়। এসময় ওই তরুণী হোটেলে একাই ছিল। গতকাল সকালে কোনো সাড়াশব্দ না পাওয়ায় খবর পেয়ে পুলিশ এসে রুমের দরজা ভেঙে লাশ উদ্ধার করে।

 

মেহনাজ জেরিন নিপার বয়স ২৪। এ বছরের ১ জানুয়ারি পুলিশের বিশেষ শাখার কনস্টেবল জাহিদুল ইসলাম রুবেলের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। বিয়ের পরপরই গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার ব্রাক্ষ্মণপাড়ার দাশিয়া গ্রাম থেকে স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় আসেন।

 

আরো পড়ুন: বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা সরকারের টানা এক যুগ পূর্তি আজ

 

মরদেহ উদ্ধারের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে নিয়ে যায় পুলিশ। স্বজনদের অভিযোগ, নীপাকে মানসিক নির্যাতনের মাধ্যমে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিয়েছিল স্বামী পুলিশ কন্সটেবল রুবেল।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এই বিভাগের আরো খবর