Berger Paint

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২,   আশ্বিন ২০ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
ভারতে বিয়ের অনুষ্ঠানের বাস খাদে পড়ে ২৫ মৃত্যু আগামী মাসে জাপান যাবেন প্রধানমন্ত্রী শুভ জন্মদিন মাশরাফি জেলেনস্কির সাথে মোদির ফোনালাপ, পরমাণু হুমকি নিয়ে উদ্বেগ ১৫০ আসনে ইভিএম ব্যবহার নিয়েও অনিশ্চয়তায় সিইসি দুই লাখ নতুন সেনা যোগ দিল রুশ বাহিনীতে আবারও করোনায় আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী

৭ মার্চকে ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০২০  

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

 

'৭ই মার্চ' জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেওয়া ভাষণের দিনকে ঐতিহাসিক দিবস হিসেবে ঘোষণার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে- মন্ত্রিসভা।

 

আজ বুধবার (৭ অক্টোবর, ২০২০) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভিডিও কন্ফারেন্সের মাধ্যমে মন্ত্রিসভার বৈঠক হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে এবং মন্ত্রীরা সচিবালয় থেকে বৈঠকে যোগ দেন।

 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ৭ই মার্চ ঐতিহাসিক এই দিনটি সবাই জানেন। জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের দৃঢ় বলিষ্ঠ নেতৃত্বের নির্দেশনা ও জাতীয় জাগরণের বহিঃপ্রকাশ ঘটেছিল ১৯৭১ সালের ৭ মার্চে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দেয়া ভাষণে। আমাদের দেশে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার মূল প্রেরণাই ছিল বঙ্গবন্ধুর দেয়া ৭ মার্চের ভাষণ।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ভাষণের আন্তর্জাতিক গুরুত্বও রয়েছে। এই ভাষণটিকে ইতিমধ্যে ‘মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ রেজিস্টারে অন্তর্ভুক্ত করেছে 'ইউনেস্কো' । বৈঠকে উপস্থিতিরাও এই ভাষণকে 'জাতীয় জাগরণ' ও 'স্বাধীনতা যুদ্ধে'র এই দিনটিকে বাঙ্গালি জাতীর অন্যতম প্রেরণার উৎস হিসেবে 'উদযাপন' করার বিষয়টি প্রাসঙ্গিক মনে করেন।

 

৭ই মার্চ দিবসটি সকল মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দফতর, সংস্থা তাদের নিজস্ব কর্মসূচির মাধ্যমে উদযাপন ও বাস্তবায়ন করবেন। তবে, এ দিন কোনো সরকারী ছুটি থাকবে না।

 

 

 

 

 

 

এই বিভাগের আরো খবর