ঢাকা, শনিবার   ২৫ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১১ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
পদ্মায় স্বপ্নপূরণের ক্ষণগণনা
১৮দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
০৬মিনিট
:
১০সেকেন্ড
সর্বশেষ:
সবাইকে কৃতজ্ঞতা জানালেন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুর মধ্য দিয়ে দেশ নতুন যুগে প্রবেশ করেছে: শিক্ষামন্ত্রী মাথা নোয়াইনি, কখনো নোয়াবো না: প্রধানমন্ত্রী জনসভাস্থলে লাখো মানুষের ঢল দেশে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৩ পদ্মা সেতুতে টোল দিলেন প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করা হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতুর কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই, বললেন প্রধানমন্ত্রী

বাগমারায় অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ পলিথিন’ প্রশাসন নিরব ভুমিকায়

নাজিম হাসান, রাজশাহী

প্রকাশিত: ২৫ মে ২০২২  

ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।

ছবি- প্রতিদিনেরচিত্র বিডি।


রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় প্রায় প্রতিটি হাট-বাজারে অবাধে বিক্রি হচ্ছে নিষিদ্ধ পলিথিন। পরিবেশ বিপর্যয়ের কারনে সরকারী ভাবে পলিথিন ব্যবহার নিষিদ্ধ হলেও নিয়মের তোয়াক্কা না করে দেদারছে উপজেলার প্রায় সর্বত্রই বিক্রি হচ্ছে এসব ক্ষতিকর পলিথিন বেগ। এর ফলে পরিবেশের মারাত্বক ক্ষতি সাধন হচ্ছে। তবে হাট-বাজার নজরদারী ও নিরব ভুমিকায় রয়েছেন স্থানীয় প্রশাসন।

 

উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভা, ভবানীগঞ্জ পৌরসভা, মাদারীগঞ্জ, মোহনগঞ্জ, হাটগাঙ্গোপাড়া,মচমইল,শিকদারীসহ বিভিন্ন হাট ও বাজার ঘুরে দেখা গেছে পলিথিন বেচাকেনা হচ্ছে। মুদি দোকান, কসমেটিক্স, ফলের বাজার,কাঁচা বাজার, মাছের বাজার, মাংসের বাজারে এর ব্যবহার বেশী লক্ষ করা যাচ্ছে। এছাড়া চাল-ডাল, মরিচ, হলুদ,চিনি,ময়দা, মাছ, কাচা বাজারে সবজিসহ বিভিন্ন পণ্য আনা-নেওয়ার কাজে অবাধে ব্যবহার করা হচ্ছে ক্ষতিকর এ নিষিদ্ধ পলিথিন। এ ছাড়াও পলিথিনে মুড়ি ও বেকারীর তৈরী বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য প্যাকেট করে বাজারে বিক্রি করায় সর্বত্র ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকায় পরিবেশের জন্য মারাত্বক ক্ষতি বয়ে আনছে। পচনযোগ্য না হওয়ায় নানা রকম পলিথিন যত্রতত্র ছড়িয়ে থাকায় কৃষি উৎপাদন ব্যহত হওয়ায় সরকার এর ব্যবহার নিষিদ্ধ করে।

 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক হাট-বাজারের খুচরা ব্যবসায়ীরা জানান, পাইকারীভাবে পলিথিন বিক্রি বন্ধ হলে হাট-বাজারে এগুলোর ব্যবহার এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে। স্থানীয় সচেতন মহলের অভিযোগ পলিথিন ব্যবহার বন্ধে সরকারের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও প্রশাসনের নজরদারির অভাবে হাট-বাজারে অবাধে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যবহার হচ্ছে। তবে পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০০২) এর ১৫(১) অনুচ্ছেদের ৪(ক) ধারায় পলিথিন উৎপাদন, আমদানি ও বাজারজাতকরণের জন্য অপরাধীদের সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অথবা ৬ মাসের কারাদন্ডের বিধান আছে। কিন্তু অসাধু ব্যবসায়ীরা কিছুদিন লুকিয়ে বেচাকেনা করলেও এখন তা প্রকাশ্যে বিক্রি করছে। এবং বিভিন্ন বাজারের ড্রেনেজ পলিথিনে বন্ধ হয়ে পানি আবদ্ধ থাকায় পানি জমে চলাচলের মারাত্বক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। অচিরেই এর ব্যবহার নিষিদ্ধ না করলে পরিবেশ ও কৃষি উৎপাদনের চরম আকার ধারণ করবে বলে এলাকার সুধী সমাজ মনে করছেন।

 

এই বিভাগের আরো খবর