ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
ডাক্তারদের ফাঁকিবাজি রুখতে হাজিরা খাতায় দিনে তিনবার সই করার নির্দেশ! ১০০০ জনবল নিয়োগ দেবে ওয়ালটন ঢাকায় আসছে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি সরকারকে ৬ দিনের আল্টিমেটাম ইমরান খানের ফাইনালের পথে বেঙ্গালুরু, লখনৌর বিদায় সেনেগালে হাসপাতালে আগুন; ১১ নবজাতকের মৃত্যু বিশ্বব্যাপী মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত ২০০ ছাড়িয়েছে ঢাবিতে ফের ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষ

পদত্যাগ করবেন না বরিস

সংবাদ বিশ্ব ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারি ২০২২  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 
কডাউনের মধ্যে পার্টি আয়োজনের ঘটনার জেরে পদত্যাগ করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বুধবার পার্লামেন্টে দেওয়া বক্তব্যে বিরোধীদের করা পদত্যাগের দাবি উড়িয়ে দেন তিনি। উল্টো আগামীতে দেশের অগ্রগতির জন্য নানা পদক্ষেপ নিয়ে তার সরকার ব্যস্ত রয়েছে বলে জানান বরিস জনসন।

 

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) পার্লামেন্টে এমপিদের প্রশ্নোত্তর পর্বের মুখোমুখি হন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। লকডাউনের মধ্যে পার্টি আয়োজনের ঘটনায় তাকে প্রশ্নে জর্জরিত করেন বিরোধীরা। একের পর এক অভিযোগের মুখে বরিস বলেন, তিনি কোনো নিয়ম ভঙ্গ করেননি।

 

এদিন পার্লামেন্টে বিরোধীদল লেবার পার্টির নেতা কির স্টার্মার আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগের দাবি জানান। তবে বিরোধীদের ডাক প্রত্যাখ্যান করেন বরিস।

 

এ সময় অভিযোগ নিয়ে তার কাছে জানতে চাওয়া হলে তদন্তাধীন বিষয় নিয়ে কথা বলতে আপত্তি জানান বরিস। উল্টো দেশের অগ্রগতির জন্য তার সরকারের নানা পরিকল্পনা তুলে ধরেন তিনি।

 

২০২০ সালের মে মাসে ডাউনিং স্ট্রিটে মদের পার্টির আয়োজন করেছিলেন বরিস জনসন। মহামারি করোনায় বিপর্যস্ত যুক্তরাজ্যে প্রধানমন্ত্রীর এমন কর্মকাণ্ড প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই সরগরম যুক্তরাজ্যের রাজনীতি। বিরোধ দলের পাশাপাশি নিজ দলেও চরম সমালোচিত হন জনসন। শেষ পর্যন্ত যদি তিনি পদত্যাগ করেন তাহলে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেতে পারেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস।

 

এই বিভাগের আরো খবর