ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
পদ্মায় স্বপ্নপূরণের ক্ষণগণনা
১৮দিন
:
১৯ঘণ্টা
:
০৬মিনিট
:
১০সেকেন্ড
সর্বশেষ:
রাজধানীতে অজ্ঞাত গাড়ির ধাক্কায় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী নিহত ফের করোনায় আক্রান্ত ফখরুল মুরগির দাম কেজিতে কমেছে ২০-২৫ টাকা পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে যানজট সৌদি পৌঁছেছেন ৩৮ হাজার ৮৮৯ জন হজযাত্রী, ৬ জনের মৃত্যু পদ্মা সেতুতে প্রথম টোল দিয়ে পাড়ি দিল মোটরসাইকেল পদ্মা সেতু পারাপারে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

জ্ঞানী মানুষ সবচেয়ে বড়লোক: জাফর ইকবাল

প্রতিদিনের চিত্র ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৭ মে ২০২২  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 

মানুষের সব সমস্যার সমাধান হচ্ছে লেখাপড়া। আর পড়াশোনার মাধ্যমে যে কোনো সমস্যার সমাধান সম্ভব। যে দেশে মানুষের মধ্যে জ্ঞান আছে, তারা বড়লোক। টাকা-পয়সা, অস্ত্র কিংবা খনিজ সম্পদ থাকলেই মানুষ বড়লোক হয় না। মন দিয়ে পড়াশোনা করলে মানুষ সম্পদে পরিণত হয়।


মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার লৌহজং বালিকা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিজ্ঞান শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে আলোচনা সভায় বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, লেখক ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল এসব কথা বলেন।

 

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল আউয়াল। আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন গবেষণা কেন্দ্র অবারিত বাংলার সহযোগিতায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রের সভাপতি, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও চলতি বছরে একুশে পদকপ্রাপ্ত অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন ও অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবালের সহধর্মিণী অধ্যাপক ড. ইয়াসমিন হক।

 

‘এসো বিজ্ঞান শিখি, প্রযুক্তিভিত্তিক দেশ গড়ি’ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে শিক্ষার্থীকে উদ্বুদ্ধকরণ সভায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা দেওয়ান মো. জাহাঙ্গীরের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন বিদ্যালয়ের সভাপতি বিএম শোয়েব সিআইপি শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অবারিত বাংলার সহসভাপতি অলক কুমার মিত্র। অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণির দুই সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। বর্ণাঢ্য এ অনুষ্ঠানটি শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিণত হয়।

 

অধ্যাপক জাফর ইকবাল বক্তৃতায় আরও বলেন, জিপিএ ফাইভ পাওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ না, জানাটা গুরুত্বপূর্ণ। তাছাড়া আনন্দের সাথে পড়াশোনা করতে হবে। পরীক্ষা বেশি থাকলে লেখাপড়া ভালো হয়- কথাটি সত্যি না।

 

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে আরও বলেন, গবেষণা করার মতো আনন্দ কোনো কিছুতে নেই। তাই আনন্দ পেতে হলে গবেষণায় মনোযোগ দাও।

এই বিভাগের আরো খবর