ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৯

ব্রেকিং:
চট্টগ্রাম, গাজীপুর, কক্সবাজার, নারায়ানগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ ব্যুরো / জেলা প্রতিনিধি`র জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের আবেদন পাঠানোর আহ্বান করা হচ্ছে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- স্নাতক, অভিজ্ঞদের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য। দৈনিক প্রতিদিনের চিত্র পত্রিকার `প্রিন্ট এবং অনলাইন পোর্টাল`-এ প্রতিনিধি নিয়োগ পেতে অথবা `যেকোন বিষয়ে` আর্থিক লেনদেন না করার জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের এবং প্রতিনিধিদের অনুরোধ করা হল।
সর্বশেষ:
ডাক্তারদের ফাঁকিবাজি রুখতে হাজিরা খাতায় দিনে তিনবার সই করার নির্দেশ! ১০০০ জনবল নিয়োগ দেবে ওয়ালটন ঢাকায় আসছে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি সরকারকে ৬ দিনের আল্টিমেটাম ইমরান খানের ফাইনালের পথে বেঙ্গালুরু, লখনৌর বিদায় সেনেগালে হাসপাতালে আগুন; ১১ নবজাতকের মৃত্যু বিশ্বব্যাপী মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত ২০০ ছাড়িয়েছে ঢাবিতে ফের ছাত্রলীগ-ছাত্রদল সংঘর্ষ

জানের ভয়ে এফডিসিতে যাই না: পপি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০২২  

ছবি- সংগৃহীত।

ছবি- সংগৃহীত।

 
গেল এক বছর কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না ঢাকাই সিনেমার গ্ল্যামার কন্যা খ্যাত নায়িকা পপির। তাকে নিয়ে নেই গুঞ্জনের কমতি। কেউ বলেছেন তিনি বিয়ে করে সংসারী হয়েছেন, আবার কেউ বলছেন সন্তানের মা হওয়ার কারণে শোবিজ থেকে অনেক দূরে তিনি। তবে এসবের মধ্যেই বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ১৭তম নির্বাচন নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন এ নায়িকা।

 

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসন্ন নির্বাচন নিয়ে একটি ভিডিও বার্তা ছেড়েছেন পপি।

 

ভিডিওটিতে নায়িকা পপি বলেন, সবাইকে অনেক শুভেচ্ছা ও সালাম। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমাদের শ্রদ্ধেয় বড় ভাই ইলিয়াস কাঞ্চন, বোন নিপুন, আমার বন্ধু রিয়াজসহ সবার জন্য শুভ কামনা রইল। ভেবেছিলাম আর কখনো ক্যামেরার সামনে আসব না। তবে না এসেও পারলাম না। দীর্ঘ ২৬ বছর আমি ফিল্ম জগতে সুনামের সাথে কাজ করে এসেছি। ৩ বার জাতীয় পুরস্কার পেয়েছি।
 

অনেকেই প্রশ্ন করেন, আমি কোথায়? আমি আপনাদের মাঝেই আছি। ভাগ্যে থাকলে কাজেও ফিরব। বর্তমান সমিতির একটি মাত্র ব্যক্তি যার নানা অপকর্ম, কুকর্ম আর নোংরামিতে সহায়তা না করায় আমাকে বারবার অপমানিত হতে হয়েছে। তার কারণে আমি এখন ভিক্টিম। আমার মতো জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীর সদস্য পদ বাতিলের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। এটা একজন শিল্পির জন্য কতটা অপমানজনক তা আমি ছাড়া আর কেউ জানে না। আমার মতো আরও ১৮৪ জনও একইভাবে অপমানিত হয়েছেন।

 

তিনি আরও বলেন, আমি জানের ভয়ে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি। আমার সদস্য পদ বাতিলের চিঠি এখনো আমার কাছে আছে। তখনই আমি সিদ্ধান্ত নেই, আমি আর এসব নোংরামির মধ্যে থাকব না। পরিবেশ ভালো হলে, এই নোংরা মানুষগুলো সরে গেলে আবার কাজ করব। আমাদের এফডিসি জাতির জনকের হাতে গড়া এফডিসি। আমাদের এফডিসি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের এফডিসি।


সবার কাছে আমার অনুরোধ, আমরা যে ভুল করেছি আপনারা তা করবেন না। সঠিক মানুষকে ভোট দিন। আমরা পরিবর্তন চাই। চলচ্চিত্রকে বাঁচান। আমি আমার ভুলের জন্য অনুতপ্ত। আমাদের ভুলের কারণে মানুষ আজ বিপদগ্রস্ত। আপনারা সবাই কাঞ্চন, নিপুন, রিয়াজ ভাইদের একটাবার সুযোগ দিন। তারা অন্তত শিল্পীদের নিয়ে অসম্মানিত করবে না।

এই বিভাগের আরো খবর